দিনাজপুর-৬: চলছে গণগ্রেফতার, ধানের শীষের প্রচার মাইক ছিনতাই

জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে দিনাজপুর-৬ আসনে চলছে গণগ্রেফতার। ধানের শীষের প্রচারণার মাইক ছিনতাইয়ের অভিযোগ আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীর বিরুদ্ধে।

শনিবার রাত থেকে শুরু করে আজ সন্ধ্যা পর্যন্ত দিনাজপুরে বিভিন্ন স্থান থেকে ৮জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে নবাবগঞ্জ থেকে ১, বিরামপুরে ৩, হাকিমপুরে ১, এবং ঘোড়াঘাটে ৩ জন ধানের শীষ প্রতীকের নির্বাচনী কর্মী গ্রেফতার করে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার রাত ৮ টার সময় নবাবগঞ্জ উপজেলার চড়ারহাট বাজার হতে কোন গ্রেফতারি পরোয়ানা ছাড়াই ধানের শীষ প্রতীকের নির্বাচনী কর্মী মোঃ নাজমুল ইসলামকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ঐদিন এশার নামাজের প্রস্তুতির সময় বিরামপুরের মুকুন্দপুর ফাযিল মাদরাসা জামে মসজিদের ইমাম ও খতীব মাওলানা মোঃ সাইদুর রহমানকে বিরামপুর থানা পুলিশ গ্রেফতার করে।

এমনকি ঐদিন বিকেলে ধানের শীষ প্রতীকের প্রচারণার সময় প্রচার মাইক, অটো রিক্সা চালক ও মাইকিং এর সরঞ্জামাদিসহ ২ জন ধানের শীষের নির্বাচনী কর্মীকে আটক করে নিয়ে যায় ঘোড়াঘাট থানা পুলিশ। আটককৃতরা হলেন দেওগাঁ গ্রামের মো: নুর আলম ও মোঃ জোবায়ের হোসেন। তাদের দুজনকে কে গায়েবী মামলায় অজ্ঞাত আসামী করে কারগারে প্রেরণ করা হয়।

এছাড়াও রবিবার হাকিমপুর উপজেলার পাউশগাড়া গ্রাম নিবাসী তরুণ স্পোর্টিং ক্লাবের সভাপতি মোঃ ফরিদুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে খেলাধুলা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠান পরিচালনার সময় দুপুর ১ টার দিকে হাকিমপুর থানা পুলিশ গ্রেফতার করে।

একই সময় বিরামপুরে কেটরা বাজারের হার্ডওয়ারের দোকান হতে ধানের শীষ প্রতীকের নির্বাচনী কর্মী মোঃ মামুনুর রশীদ, আমাইল গ্রামের মোঃ নজির হোসেনকে বিরামপুর থানা পুলিশ গ্রেফতার করে।

রবিবার সন্ধ্যার সময় ঘোড়াঘাট উপজেলার জামায়াতের সদস্য আলহাজ্জ মোঃ ইদ্রীস আলীকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ।

নবাবগঞ্জ উপজেলার দাউদপুরে ধানের শীষ প্রতীকের পোস্টার ও ব্যানার লাগানো অবস্থায় প্রায় ৪০ টি ব্যানার ও কয়েক শত পোস্টারসহ ৪ জন কর্মীকে আটক করে রাখে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। কয়েক ঘন্টা আটক রাখার পর ৪ জনকে ভয়ভীতি দেখিয়ে পোস্টার ও ব্যানার রেখে তাদের ছেড়ে দেয় আওয়ামীল লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা।

এদিকে বিরামপুর উপজেলার দিওড় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সেক্রেটারী মোঃ শওকত আলি, তার ভাই রায়হান ও পাপ্পাসহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগের নেতা-কর্মীরা ধানের শীষ প্রতীকের প্রচার মাইক ছিনতাই করে নেয়।

হাকিমপুর উপজেলার আলীহাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ বাবুর নির্দেশে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ এবং ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা প্রকাশ্যে ধানের শীষের পোস্টার ছিড়ে আগুন জালিয়ে দেয়।

অন্যদিকে হাকিমপুর পৌরসভার কাউন্সিলর লিটনের নির্দেশে জালালপুরসহ পার্শ্ববর্তী এলাকার ও কাউন্সিলর আবু বকরের নির্দেশে ফকির পাড়াসহ আশেপাশের পোস্টার ছিড়ে ফেলে।

Comments

comments