মেহেরপুরে পুলিশের ওপর চড়াও ছাত্রলীগ

মেহেরপুর স্টেডিয়াম মাঠে আজ রোববার বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান চলাকালে কর্মী আটকের ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুলিশের ওপর চড়াও হন ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। এ ঘটনায় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ (ওসি) তিনজন আহত হন। পুলিশ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতিসহ চারজনকে আটক করেছে।

মেহেরপুর জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আজ বেলা ১১টার দিকে স্টেডিয়াম মাঠে জেলা প্রশাসন আয়োজিত বিজয় দিবসের কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠান চলছিল। অনুষ্ঠানে ইব্রাহিম হোসেন নামের এক ছাত্রলীগ কর্মী ভূমি অফিসপাড়ার সুরুজ আলীকে মারধর করেন। এ সময় পুলিশ সদস্যরা মারধর থামাতে ইব্রাহিমকে আটক করেন। তখন অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা পুলিশের কাছ থেকে ইব্রাহিমকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। এতে পুলিশের সঙ্গে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের সংঘর্ষ হয়। সদর থানার ওসি রবিউল ইসলামকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেন ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। এ ছাড়া আহত হন পুলিশ সদস্য মো. রনি ও মেহেরপুর শহরের ভূমি অফিসপাড়ার স্কুলছাত্র সুরুজ আলী।

পুলিশ জানায়, ওসিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। রনি ও সুরুজকে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আবদুল সামাদ বাঁধন, ছাত্রলীগ কর্মী ইব্রাহিম, শিশির আলী ও আশিক হোসেনকে আটক করেছে। এ ঘটনায় সদর থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Comments

comments