নির্বাচন পর্যবেক্ষণ ও ১৫ হাজার পর্যবেক্ষকের তহবিল যোগাবে যুক্তরাষ্ট্র: মিলার

ঢাকা: বাংলাদেশের আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিজেদের পর্যবেক্ষক রাখার কথা জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। সেই সঙ্গে অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের জন্য স্থানীয় পর্যবেক্ষকদেরও সহায়তা করবে তারা।

যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল আর মিলার মঙ্গলবার ঢাকার আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশনে বৈঠক শেষে এ কথা জানিয়েছেন।

বৈঠক শেষে রাষ্ট্রদূত সাংবাদিকদের বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য আমরা বাংলাদেশকে উৎসাহ দেই। নির্বাচন কমিশনের সঙ্গেও এই বিষয়েই কথা হয়েছে।

আর্ল আর মিলার বলেন, যুক্তরাষ্ট্র কোনো রাজনৈতিক দল বা প্রার্থীকে সমর্থন করে না।

তিনি আরও জানান, গত অক্টোবরে প্রাক-মূল্যায়নের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের অর্থায়নে ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক ইনস্টিটিউট পাঁচ সদস্যের একটি দল পাঠিয়েছে। এই মাসেই দ্বিতীয় প্রাক-মূল্যায়ন কাজ সম্পন্ন হবে।

আগামী জাতীয় নির্বাচনে বাংলাদেশজুড়ে নির্বাচন পর্যবেক্ষকদের নিয়োজিত করবে যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস। সেই সঙ্গে যুক্তরাজ্য ও সুইজারল্যান্ডের সঙ্গে যৌথভাবে তারা ইলেকশন ওয়ার্কিং গ্রুপের অধীনে ১৫ হাজার স্থানীয় পর্যবেক্ষকের তহবিল যোগাবে।

গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া বাকস্বাধীনতার গুরুত্বের প্রসঙ্গও আজ তুলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সুস্থ গণতন্ত্রের জন্য বাকস্বাধীনতা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। রাজনৈতিক প্রক্রিয়ায় অংশ নেওয়ার জন্য সব দলের স্বাধীনতা থাকা উচিৎ। সেই সঙ্গে রাজনৈতিক সভা-সমাবেশ ও প্রচার-প্রচারণায় কোনো প্রতিবন্ধকতা থাকা উচিত নয়।

Comments

comments