চৌদ্দগ্রামে ২০ দলীয় জোটের ৯ নেতাকর্মীর বাড়িতে পুলিশ ও যুবলীগের তান্ডব

  • সাবেক এমপি ডাঃ তাহেরের নিন্দা

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে ২০ দলীয় জোট ও ধানের শীষ প্রতীকের ৯ নেতাকর্মীর বাড়িতে তল্লাশীর নামে পুলিশ ও যুবলীগ কর্মীদের তান্ডব চালানোর অভিযোগ করেছেন সাবেক এমপি, ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী ডাঃ সৈয়দ আবদুল্লাহ মোঃ তাহের।

গতকাল মঙ্গলবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, প্রতীক বরাদ্দের পরই সোমবার বিকেলে ধানের শীষের পক্ষে উপজেলার কাশিনগর ইউনিয়নের যাত্রাপুর, জয়মঙ্গলপুর, দাতামা, কনকাপৈত ইউনিয়নের করপাটি, মাসকরা, তারাশাইল, জঙ্গলপুর, পন্নারা, চৌদ্দগ্রাম পৌরসভার ফালগুনকরা, চাটিতলা, চান্দিশকরা, মুন্সিরহাট ইউনিয়নের ডাকরা, বৈলপুর, বাতিসা ইউনিয়নের বসন্তপুর, সোনাপুর, চিওড়া ইউনিয়নের হান্ডায় নেতাকর্মীরা মিছিল বের করে। খবর পেয়ে চৌদ্দগ্রাম থানা ও কনকাপৈত পুলিশ ফাঁড়ির পৃথক টিম আলহাজ্ব নূর মিয়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যাপক কনকাপৈত ইউনিয়নের দৌলতপুর গ্রামের মোহাম্মদ আলী, বুদ্দিন গ্রামে মাওলানা ইয়াছিন, তারাশাইল গ্রামে শিক্ষক মাওলানা তৈয়ব উল্যাহ, মফিজুর রহমান স্বপন, মুন্সিরহাট ইউনিয়নের ছাতিয়ানী গ্রামে কফিল উদ্দিন মোল্লা, সোমবার রাতে চৌদ্দগ্রাম পৌরসভার চান্দিশকরা গ্রামে কাউন্সিলর ফরিদ উদ্দিন বাদশা, জোট কর্মী হেলাল উদ্দিন, চাটিতলা গ্রামে মাওলানা শাহ আলমের বাড়িতে পুলিশ তল্লাশীর নামে তান্ডব চালায়।

এছাড়া সোমবার সন্ধ্যায় কনকাপৈত ইউনিয়নের জঙ্গলপুর গ্রামে যুবলীগ কর্মীরা মিছিল করে ওই গ্রামের নজরুল ইসলামের দোকান ভাংচুর করে।

ডাঃ তাহের অভিযোগ করেন, রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক পুলিশের প্রটোকল নিয়ে চৌদ্দগ্রাম বাজার ও শ্রীপুর ইউনিয়নের চৌমুহনী বাজারে গণসংযোগ করে। এতে করে জনমনে নানা প্রশ্ন ও ভীতির সঞ্চার হয়েছে। একই দিনে এক প্রার্থীর সমর্থকের বাড়িতে পুলিশি হামলা ও অপর প্রার্থীকে পুলিশি প্রকোটল নজিরবিহীন ঘটনা। নির্বাচনী পরিবেশে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড দেখা যাচ্ছে না। অবিলম্বে শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের জন্য প্রশাসনের একচোখা নীতি পরিহারের আহবান জানান তিনি।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

Comments

comments