প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে দিলেন আ. লীগ নেতা

পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার চাকামইয়া ইউনিয়নের মৌলভী বে-সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সকল শ্রেণি কক্ষে তালা ঝুলিয়ে অনির্দিষ্ট কালের জন্য বিদ্যালয় বন্ধ করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে পরিচালনা পর্ষদ সভাপতি ও আওয়ামী লীগ নেতা সুলতান আহমেদ’র বিরুদ্ধে।

বুধবার সকালে সভাপতির এমন কান্ডে হতবাক বনে গেছেন অভিভাবকসহ এলাকাবাসী। শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে অসন্তোষের জের ধরে সভাপতি এমন কান্ড করেছেন বলে জানান অভিভাকসহ শিক্ষকরা। তারা জানান, বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে অবহিত করা হয়েছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, বিদ্যালয়ের ছয়টি কক্ষেই তালা মারা রয়েছে। অধিকাংশ শিক্ষার্থী বাড়ি ফিরে গেলেও কিছু শিক্ষার্থী বইপত্র হাতে নিয়ে স্কুলের বারান্দায় ঘুরছে। শিক্ষকরা বিদ্যালয়ের বারান্দায় পায়চারী করছেন। তৃতীয় শ্রেণির ইয়াছিন, পঞ্চম শ্রেণির রুমাসহ বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী এবং শিক্ষিকা সালমা পারভীন জানায়, সকাল নয়টায় স্কুলে এসে দেখি সব রুমে তালা মারা রয়েছে। দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী আবু বকরের পিতা নুর জামাল জানান, সকালে ছেলেকে স্কুলে পাঠালে কিছু সময় পরে সে বাড়ি ফিরে আসে। পরে স্কুলে এসে জানতে পারি সভাপতি স্কুল অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দিয়েছে।

বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সদস্য আলমগীর হাওলাদার জানান, সভাপতি সুলতান আহমেদ বুধবার সকালে এসে সকল রুমে তালা লাগিয়ে দিয়েছেন। বলেছেন স্কুল অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ থাকবে।

বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ সভাপতি সুলতান আহমেদ বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, বিদ্যালয়ের দু’জন শিক্ষিকা দীর্ঘদিন ধরে অনুপস্থিত রয়েছেন। এতে পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে। এটি আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র।

কলাপাড়া উপজেলা প্রাথমকি শিক্ষা অফিসার জালাল আহমেদ জানান, অভিযোগ পেয়েছি। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয় সরেজমিনে তদন্তের নির্দেশনা দিয়েছেন। শিক্ষা সপ্তাহ নিয়ে ব্যস্ত রয়েছি। এক সপ্তাহ পরে বিষয়টি দেখবো। অভিযোগের সত্যতা পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Comments

comments