বেশি সময় অফিসে না থাকতে ড্রোন দিয়ে নজরদারি!

যাতে বেশি সময় ধরে প্রতিষ্ঠানে কোনো কর্মী কাজ করতে না পারে তা নজরদারি করতে ড্রোনের ব্যবহার শুরু করেছে জাপান। সম্প্রতি দেশটিতে কর্মীরা বেশি নির্দিষ্ট সময়ের বাইরে বিনা পারিশ্রমিকে বেশি সময় দিচ্ছেন। এর পর থেকে হয়তো দেখা যাবে জাপানের অফিস গুলোতে টহল দিচ্ছে ড্রোন।

বেশি কাজ করা দীর্ঘদিনের অভ্যাস জাপানিদের। এ সময় প্রতিষ্ঠানে ওভার টাইম হিসেবে গণ্য করা হয় না। তাদের নির্দিষ্ট অর্থের বাইরে কোনো অর্থও পরিশোধ করা হয় না। তাই দেশটির কয়েকটি সংস্থা তাদের সঠিক সময় মনে করিয়ে দেওয়ার জন্য অফিসে ড্রোন ক্যামেরা চালু রাখছে।

এর মাধ্যমে জানা যাবে কে অনেক বেশি সময় ধরে অফিসে আছেন। এদিকে অতিরিক্ত সময় কাজ করা থেকে জাপানিদের আটকাতে আনা হয়েছে নতুন বিলও। এই বিলে বলা হয়েছে যে সারা মাসে ১০০ ঘণ্টার বেশি কাজ করা যাবে না।

সাম্প্রতিক কিছু প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে, জাপানের কর্মীরা অতিরিক্ত কাজের চাপ নিয়ে নিজেদের মৃত্যু প্রবণতাও বাড়িয়ে তুলছেন। আর এমন প্রবণতা কমানোর জন্যই ড্রোন ব্যবহারের দিকে ঝুঁকেছে সংস্থাগুলো।

এছাড়া একটি বিশেষ চশমা আনা হয়েছে, যেটি নজর রাখবে চোখের স্বাস্থ্যের দিকে। একটানা অনেকক্ষণ কম্পিউটারের দিকে তাকিয়ে কাজ করবার ফাঁকে চোখের পাতা ফেলার কথা বা চোখকে বিশ্রাম দেওয়ার কথাও মনে করিয়ে দেবে একটি বিশেষ অ্যাপও।

দশকের পর দশক ধরে চলে আসা কাজের এমন সংস্কৃতি প্রযুক্তির সাহায্যেই পরিবর্তন করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে জাপান।

Comments

comments