গরমে ওষ্ঠাগত প্রাণিকূল

ক’দিন ধরে তীব্র তাপদাহে মানুষের পাশাপাশি কাবু প্রাণিকূলও। ছবিটি বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা থেকে তোলা- সংগৃহিত

অসহনীয় গরমের প্রভাব পড়েছে দেশের চিড়িয়াখানাগুলোর প্রাণীকূলের ওপর। প্রচণ্ড তাপদাহে প্রাণীদের খাদ্য গ্রহণে অনীহা দেখা দিয়েছে। এ কারণে বিকল্প খাদ্যের ব্যবস্থা করেছে চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ। খাদ্য তালিকায় যুক্ত করা হয়েছে খাবার স্যালাইন, ভিটামিন-সি, মৌসুমী ফল তরমুজ, আনারস, শসা, সফেদা ও বাঙ্গি। আর বিশুদ্ধ শীতল পানি তো থাকছেই।

ক’দিন ধরে তীব্র তাপদাহে মানুষের পাশাপাশি কাবু প্রাণিকূলও। ছবিটি বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা থেকে তোলা- সংগৃহিত

সরেজমিন চিড়িয়াখানায় গিয়ে দেখা গেছে, গরমে বেশিরভাগ প্রাণী খুঁজছে শীতল ছায়া। তাপদাহে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে বাঘ, সিংহ, ভাল্লুক ও হায়েনা। পাখিদেরও বেড়েছে অস্বস্তি। বিশেষ করে ম্যাকাউ, ইমু, ময়ূর, কেশোয়ারী, উটপাখি, হাড়গিলা, সাদা বক, চন্দনা, টিয়া, মদনটাক, গেটার ফ্লেমিং ও কালো গলার বকেরা অস্থির হয়ে পড়েছে। কেননা অন্যান্য প্রাণীর মতো এদের ঘাম নির্গমন পথ থাকে না। ফলে অনেক সময় এদের ‘হিটস্ট্রোক’ হতে পারে বলে জানা গেছে।

ক’দিন ধরে তীব্র তাপদাহে মানুষের পাশাপাশি কাবু প্রাণিকূলও। ছবিটি বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা থেকে তোলা-সংগৃহিত

তবে তৃণভোজী বিশেষ করে জিরাফ, জলহস্তি ও হাতির তেমন সমস্যা হয় না গরমে। সাদা হনুমান, কালো হনুমান, চিত্রা হরিণ, বানর, উল্লুক প্রভৃতি প্রাণীরও গরমে সমস্যা নেই। কারণ এরা খাদ্য হিসাবে শাকসবজি, ফলমূল, ঘাস, লতাপাতা খেয়ে বেঁচে থাকে।

ক’দিন ধরে তীব্র তাপদাহে মানুষের পাশাপাশি কাবু প্রাণিকূলও। ছবিটি বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা থেকে তোলা- সংগৃহিত

তবে গরমে কিছু সরীসৃপ জাতীয় প্রাণীর সমস্যা দেখা দেয়। বিশেষ করে অজগর ও গোখরা সাপেরা অতিরিক্ত গরমে অস্বস্তিকর অবস্থায় পড়ে। গরমকালে এরা শরীরের খোলস পরিবর্তন করে। এ সময় অজগর ও গোখরা জাতীয় সাপের খাবার গ্রহণের প্রতি অনীহা দেখা দেয়। এরা সাধারণত ঠাণ্ডা গর্তে থাকতে ভালোবাসে। চিড়িয়াখানায় এদের খড় বা অন্যান্য উপাদান দিয়ে সেই ব্যবস্থা করা হয়।

ক’দিন ধরে তীব্র তাপদাহে মানুষের পাশাপাশি কাবু প্রাণিকূলও। ছবিটি বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা থেকে তোলা- সংগৃহিত

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের শিক্ষক ড. মো. বাকী বিল্লাহ বলেন, ‘গরমে যে কারো বাড়তি পরিচর্যা দরকার। চিড়িয়াখানার প্রাণীদের জন্য তো আরো বেশি পরিচর্যা দরকার। এদের পানিযুক্ত খাবার বেশি দিতে হয়। এছাড়া পানি সরবরাহ নিয়মিত রাখতে হবে।’

Comments

comments