ফের মাঠে নামছে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীরা

ফের মাঠে নামছে সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। প্রধানমন্ত্রীর ‘কোটা বাতিলের’ ঘোষণার পর আন্দোলন স্থগিত করলেও প্রজ্ঞাপন জারি না হওয়ায় জুলাই মাস থেকে তারা আবারো আন্দোলনে নামবেন।

বাংলাদেশ জার্নালকে এসব তথ্য জানিয়েছেন কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীদের প্ল্যাটফর্ম বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতারা। তারা পবিত্র রমজান ও ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ে দীর্ঘদিনের ছুটি থাকায় সরকারকে জুন মাসের মধ্যে কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপন জারির দাবি জানান। অন্যথায় তারা জুলাই মাস থেকে আবার আন্দোলনে যাবেন বলে হুঁশিয়ারি দেন।

বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুন বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, ‘কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপনের বিষয়ে মন্ত্রী পরিষদ থেকে আমরা এখন পর্যন্ত কোন সিদ্ধান্ত পাইনি। আমরা চাই জুন মাসের মধ্যেই কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপন জারি হোক। তা না হলে জুলাই মাসে সংবাদ সম্মেলন করে আমরা নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করবো।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের এ আন্দোলন ছিলো কোটা সংস্কারের, কোটা বাতিলের নয়। এখন রাষ্ট্রের প্রয়োজনে যদি কিছু অংশ রাখা প্রয়োজন মনে করেন, তাহলে সেটা তারা রাখতে পারেন। তবে সেটা অবশ্যই আমাদের পাঁচ দফা দাবির আলোকে হতে হবে। এছাড়া কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপনের পরেও যারা কোটা সংস্কার আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন তাদের নিরাপত্তার দায়িত্ব সরকারকে নিতে হবে।’

যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক নুর বলেন, ‘এ মাসটা আমরা দেখবো। যদি এ মাসে প্রজ্ঞাপন জারি না হয়, তবে সামনের মাসে আমরা আবার আন্দোলনে নামবো। প্রজ্ঞাপন না হলে আন্দোলন চলবে।’

রাশেদ খান বলেন, ‘সরকারের পক্ষ থেকে দ্রুতই কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপন জারির আশ্বাস দেয়া হলেও এখন পর্যন্ত কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপন জারি করা হয় নাই। তাই দাবি আদায়ে আমরা আবার মাঠে নামবো।’

Comments

comments