‘গরিবের হক মেরে রোজা, কেবল উপোস থাকা’

রোজা রেখে গরিবের হক মারলে তা কেবল উপোস থাকা হবে বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের দাওয়াহ অ্যান্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. তরীকুল ইসলাম।

সোমবার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষদ ভবনের ৪০১ নম্বর কক্ষে শিক্ষক সংগঠন গ্রিন ফোরামের আয়োজনে এক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান আলোচকের বক্তব্যে তরীকুল ইসলাম এসব কথা বলেন।

তরীকুল ইসলাম বলেন, ‘রোজা রেখে গরিবের হক মারলে তা কেবল উপোস থাকা। এ ছাড়া রোজা রেখে যদি সুদ, ঘুষ, কালোবাজারি, ওজনে কম দেওয়া, মিথ্যা বলা, অন্যায় করা বা সমর্থন করাসহ যাবতীয় নিষিদ্ধ কাজ থেকে নিজেদের বিরত রাখতে না পারি তবে আমাদের রোজা শুধুই না খেয়ে থাকা হবে। সুতরাং হক আদায় করে আমাদের রোজা রাখতে হবে।’

কোরআন ও হাদিসের আলোকে উপস্থাপিত বক্তব্যে অধ্যাপক ড. তরীকুল ইসলাম আরো বলেন, ‘আল্লাহ রমজানের মাসের মর্যাদা এত বাড়িয়ে দিয়েছেন এ জন্য যে, এই মাসে মহাগ্রন্থ আল কোরআন নাজিল হয়েছে। আর কোরআনকে আল্লাহ সহজ করে নাজিল করেছেন, যাতে তার বান্দারা তা থেকে খুব সহজে শিক্ষা গ্রহণ করতে পারে। বর্তমানে সমাজের একটি শ্রেণি কোরআনকে কঠিন বলে প্রচার করছে। এটি খুবই দুঃখজনক। আসলে তারা মানুষকে কোরআন থেকে দূরে রাখতে চায়।’

আলোচনা সভাটি সঞ্চালনা করেন গ্রিন ফোরামের কার্যনির্বাহী সদস্য অধ্যাপক ড. মোস্তাফিজুর রহমান।

সভায় উপস্থিত ছিলেন গ্রিন ফোরামের সভাপতি অধ্যাপক ড. আবু সিনা, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মিজানূর রহমান, গ্রিন ফোরামের সাবেক সভাপতি অধ্যাপক ড. শহীদ মুহাম্মদ রেজওয়ান, অধ্যাপক ড. রুহুল আমিন, অধ্যাপক ড. আখতার হোসেন, অধ্যাপক ড. ওবায়দুল ইসলাম, অধ্যাপক ড.এ কে এম মফিজুল ইসলাম, অধ্যাপক ড.এ কে এম শামসুল হক সিদ্দিকী, অধ্যাপক ড. সাইফুল গনি নোমান, সহযোগী অধ্যাপক লুৎফর রহমান, সহযোগী অধ্যাপক রফিকুল ইসলামসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকরা।

এ ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা এই আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে অংশ নেন।

Comments

comments