বিস্ফোরণে কাঁপলো উত্তর কোরিয়া, পরমাণু অস্ত্র ‘পরীক্ষা কেন্দ্র’ ধ্বংস

কয়েক দিন ধরেই আলোচনায় ছিল বিষয়টি। অবশেষে বাস্তবে রূপ পেল। উত্তর কোরিয়া নিজেদের পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষা কেন্দ্র ধ্বংস করে দিয়েছে। বৃহস্পতিবার কয়েক ঘণ্টা ধরে চলে এ যজ্ঞ।

শক্তিশালী সিরিজ বিস্ফোরণে কেঁপে উঠে দেশটির উত্তরাঞ্চলের পাহাড়ঘেরা এলাকা। বিদেশি সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে পরীক্ষা কেন্দ্রটি ধ্বংস করা হয়। মূলত প্রতিবেশি দক্ষিণ কোরিয়ার সাথে শান্তির আলোচনা জোরদার করার উদ্যোগের অংশ হিসেবেই এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

আগামী মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাথে নির্দিষ্ট বৈঠকের আগে উত্তর কোরীয় নেতা কিমজং উন সম্প্রতি ঘোষণা দেন তিনি পুঙ্গিয়েরিতে অবস্থিত তাদের অস্ত্র পরমাণু পরীক্ষা কেন্দ্রটি ধ্বংস করে দেবেন। আজ বৃহস্পতিবার স্যাটেলাইটে তোলা ছবিতে বিস্ফোরণের দৃশ্য ধরা পড়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র, চীন, রাশিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া এবং যুক্তরাজ্য থেকে সাংবাদিকরা হাজির ছিলেন পরীক্ষা কেন্দ্রটি ধ্বংসযজ্ঞ পর্যবেক্ষণ করতে।

তবে আন্তর্জাতিক পরমাণু অস্ত্র বিশেষজ্ঞরা হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, পিয়ংইয়ংয়ের এই পদক্ষেপে ভিন্ন উদ্দেশ্যেও থাকতে পারে। এভাবে পরীক্ষা কেন্দ্র ধ্বংস করে দেয়ার মাধ্যমে এ সংক্রান্ত যাবতীয় প্রমাণাদি হাতছাড়া হতে পারে।

আসান ইনস্টিটিউট ফর পলিসি স্টাডিজ এর গবেষণা ফেলো চিওন সিওন হুন সিনিএনকে বলেছেন, এই ধ্বংসযজ্ঞের মাধ্যমে বিশ্ববাসী উত্তর কোরিয়ার পরমাণু প্রকল্পের ইতিহাস ও ধরণ সম্পর্কে জানা থেকে বঞ্চিত হবে। এই গবেষক আরও মনে করেন, এর মাধ্যমে দেশটি তার পরমাণু অস্ত্রে সমৃদ্ধ হওয়ার আকাঙ্খা থেকে সরে এসেছে বা আসবে এটি বলার কোনো সুযোগ নেই। জাতীয় নিরাপত্তা বিষয়ক বিশেষজ্ঞ শেরিল রফারও এবিষয়ে একমত।

Comments

comments