বায়তুল মোকাররমে ইসলামী বইমেলা চলছে, মিডিয়া নীরব

  • আয়োজকদের দৃশ্যমান তৎপরতা নেই
  • মিডিয়ায় কোন প্রচারণা নেই
  • আগের চেয়ে সংকীর্ণ জায়গায় আয়োজন করা হয়েছে

পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে প্রতিবছরের মতো এবারও বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের দক্ষিণ চত্বরে মাসব্যাপী ইসলামী বইমেলা শুরু হয়েছে।

পুরো রমজানজুড়ে মেলা প্রতিদিন সকাল ১০ টা রাত ৮ টা পর্যন্ত জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। এবারের মেলায় বিভিন্ন ইসলামী প্রকাশনী সংশ্লিষ্ট ৬২ টি স্টল অংশগ্রহণ করেছে।

মেলায় পবিত্র কুরআনের অনুবাদ, তাফসীর, হাদিসগ্রন্থসহ ইসলামের বিভিন্ন বিষয়ের ওপর মৌলিক ও গবেষণামূলক গ্রন্থ স্থান পেয়েছে। এছাড়া ইসলামিক ফাউন্ডেশনের স্টলে আকর্ষণীয় কমিশনে পবিত্র কুরআনের অনুবাদ, তাফসীর, হাদিস বিক্রি করা হবে। এক কথায় ইসলামী গ্রন্থসমূহের সমারোহ থাকবে মেলায়।

অন্যদিকে বায়তুল মুকাররম মসজিদের উত্তর চত্বরে শুক্রবার থেকে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর জীবনীভিত্তিক পোস্টার ও ক্যালিওগ্রাফি প্রদর্শনী শুরু হয়েছে। প্রদর্শনীটিও পুরো রমজান মাসব্যাপী চলবে।

এদিকে ফেব্রুয়ারি মাসের বাংলা একাডেমীর আয়োজনে একুশে বই মেলা নিয়ে ঘন্টায় ঘন্টায় আপডেট জানালেও পবিত্র মাহে রমজানে প্রতিবছরের মত এবছরের ইসলামী বই মেলা নিয়ে গণমাধ্যমের যেন কোনই আগ্রহ নেই। দুই একটি চ্যানেলে নামমাত্র রিপোর্ট হলেও এই মেলায় মানুষকে আগ্রহী করে তোলার মত কোন প্রচারণাই লক্ষ্য করা যায়নি। এমনকি মেলার কর্তৃপক্ষ ইসলামিক ফাউন্ডেশনকেও কোন উল্লেখযোগ্য বা নজরকাড়া প্রচারণা করতে দেখা যায়নি। এর আগে এই মেলার আয়োজন বায়তুল মুকাররমের উত্তর গেইটে হলেও এখন অজানা কারণে ইসলামিক ফাউন্ডেশন মেলা দক্ষিণ গেইটে আয়োজন করেছে। অথচ উত্তর গেটে বিশাল জায়গা থাকার কারণে পল্টন-দৈনিক বাংলা রাস্তা থেকে বইমেলা দেখা যেতো। কিন্তু দক্ষিণ গেইটের মেলার জন্য নির্দিষ্ট জায়গা অপেক্ষকৃত সংকীর্ণ এবং এ গেইট থেকে অপেক্ষাকৃত কম মুসুল্লী মসজিদে প্রবেশ করে। এর ওপর মেলার ঠিক সামনের জায়গা হকারদের দখলে থাকায় সেখানে যে কোন জাতীয় পর্যায়ের মেলা হচ্ছে তা বুঝাই দায়। তাছাড়া ক্রেতা ও দর্শনার্থী আকর্ষণে তেমন কোন দৃশ্যমান তোরণ বা সাজ সজ্জা না থাকায় ইসলামী বই মেলার আয়োজন নিয়ে আয়োজকদের উদ্দেশ্যমূলক গাফলতি স্পষ্ট হয়ে উঠেছে।

Comments

comments