চাইলাম অধিকার হয়ে গেলাম রাজাকার

কোটা সংস্কার কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক মো. রাশেদ খান বলেছেন, গতকাল (সোমবার) ওবায়দুল কাদেরসহ সরকারপক্ষের সঙ্গে আলোচনা হয়েছিল। তাদের অনুরোধে আমরা এক মাসের সময় দিয়েছিলাম। কিন্তু সাধারণ আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা তা না মেনে আন্দোলন চালিয়ে যায়।

মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

রাশেদ খান বলেন, আলোচনার বৈঠক চলাকালে সংসদে বক্তব্যে মতিয়া চৌধুরী কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীদের কোটা বিরোধী হিসেবে আখ্যা দেন। মতিয়া সংসদে বলেন, আন্দোলনকারীদের ৮০ শতাংশ রাজাকারের বাচ্চা। এমন বক্তব্যে আমরা মর্মাহত। আমরা অধিকার আদায়ে আন্দোলন করতে গিয়ে রাজাকারের বাচ্চা হলাম।

তিনি আরও বলেন, মতিয়া চৌধুরীকে ক্ষমা চাইতে বিকেল ৫টা পর্যন্ত আল্টিমেটাম দেয়া হয়েছিল। তিনি ক্ষমা চাননি। উল্টো অর্থমন্ত্রী সচিবালয়ে বলেছেন, আগামী বাজেটের আগে কোটা সংস্কারের দাবি পূরণ করা সম্ভব নয়। এরপর আর গতকালকের আলোচনা ও এক মাস আন্দোলন স্থগিতের ঘোষণার কোনো গুরুত্ব থাকে না। তাই আমরা ফের অবরোধ, ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দিচ্ছি। কোটা সংস্কারের দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।

Comments

comments