ঢাবিতে ছাত্রলীগের গোপন বৈঠক : আনা হচ্ছে অস্ত্র, সংঘর্ষের আশঙ্কা

ফাইল ফটো

ভিসির বাসভবনে অগ্নিসংযোগ করেও আন্দোলনকারীদের দমাতে না পেরে নতুন কৌশলের দিকে নজর দিয়েছে ছাত্রলীগ। ক্যাম্পাসের বাহির থেকে অস্ত্র ও বহিরাগত নেতা-কর্মীদের জড়ো করে টিএসসি কেন্দ্রিক অবস্থান নেয়া আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালানোর প্রস্তুতি নিয়েছে তারা। আজ বিকেলে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সাথে আন্দোলনকারীদের মধ্য থেকে ২০ জনের এক প্রতিনিধি দল আলোচনার জন্য যাওয়ার পর থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মধুর ক্যান্টিনে জড়ো হতে থাকে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতারা।

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেনের নেতৃত্বে এসময় সেখানে যোগ দেন ছাত্রলীগের ঢাকা মহানগরের নেতৃবৃন্দ। এসময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি মিজানুর রহমান, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি বায়েজিদ আহমেদ খান, ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাব্বির হোসেনসহ দুই মহানগরের বেশ কয়েকজন নেতা। গোপন এ বৈঠকে অংশ নেয়ার পর থেকেই ছাত্রলীগ ক্যাম্পাসে আগ্নেয়াস্ত্রসহ দেশীয় অস্ত্র এবং লাঠি-সোটা জড়ো করছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

এদিকে সন্ধ্যার পর থেকেই ক্যাম্পাসে বহিরাগত ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের প্রচুর উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। কোটা সংস্কারের বিষয়টি পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য আগামী ৭ মে পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত করার বৈঠকের সিদ্ধান্ত প্রত্যাখ্যান করেছেন বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা সোমবার সন্ধ্যায় বৈঠক শেষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি চত্বরে ফিরে প্রতিনিধি দলের নেতা হাসান আল মামুন আন্দোলন স্থগিত রাখার বিষয়ে বৈঠকের সিদ্ধান্তের কথা জনান। এ সময় উপস্থিত শত শত শিক্ষার্থী ‘মানি না, মানবো না’- বলে স্লোগান দিতে থাকেন। ঠিক এসময়েই ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের ব্যাপক উপস্থিতি বেড়ে যায়। এবং আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর আক্রমণের প্রস্ততি নেয়।

যেকোন সময় তারা সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপর বড় ধরণের আক্রমণ করার সম্ভাবনা রয়েছে।

Comments

comments