ব্যাংকের অনিয়মের সংবাদ প্রকাশে নিষেধাজ্ঞার প্রস্তাব অযৌক্তিক: টিআইবি

ব্যাংকিং ও আর্থিক খাতে দুর্নীতি এবং অনিয়মের তথ্য প্রকাশ বন্ধের উদ্দেশ্যে বেসরকারি ব্যাংকগুলোর সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকসের (বিএবি) প্রস্তাবকে ‘অযৌক্তিক’ আখ্যা দিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)। এ প্রস্তাবের তীব্র নিন্দা ও গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে দুর্নীতিবিরোধী সংগঠনটি জানায়, এ ধরনের প্রস্তাব মেনে নিলে তা এ খাতে দুর্নীতি ও অনিয়মে জড়িত ব্যক্তিদের সুরক্ষা দেবে এবং আরও দুর্নীতির বিস্তার ঘটাবে।।

এ প্রস্তাবকে ‘পশ্চাদমুখী’ ও ‘নিবর্তনমূলক’ আখ্যা দিয়ে তা প্রত্যাখ্যানের জন্য সরকার এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতি আহ্বান জানায় সংস্থাটি।

সোমবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান বলেন, গণমাধ্যম সূত্রে জানা যাচ্ছে যে সংবাদ প্রকাশ থেকে সংবাদমাধ্যমকে বিরত রাখার জন্য ব্যাংক রিপোর্টিং অ্যাক্ট করার সুপারিশ করেছে বিএবি। প্রস্তাবটি শুধু উটপাখিসম আচরণের বহিঃপ্রকাশই নয়, এটি ব্যাংকিং খাতে অনিয়ম, দুর্নীতি, জালিয়াতির তথ্য গোপন রেখে এসবের সুরক্ষা দেওয়া ও আরও বিকাশের সুযোগ সৃষ্টির অপপ্রয়াস। কোনো অবস্থায়ই এ ধরনের জনস্বার্থবিরোধী প্রস্তাব গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। বেসরকারি হলেও ব্যাংকিং খাত বাস্তবে জনগণের অর্থের ওপর নির্ভরশীল বিধায় এ খাতের ইতিবাচক সংবাদের পাশাপাশি দুর্নীতি, অনিয়মসহ সব ধরনের তথ্য জানার অধিকার জনগণের রয়েছে। তথ্য প্রকাশে প্রতিরোধক তৈরি করে জনগণকে বিভ্রান্ত করে অনিয়ম ও দুর্নীতির বিস্তার করার কোনো অধিকার জনগণ ব্যাংক খাতকে দেয়নি।

ইফতেখারুজ্জামান আরও বলেন, ‘ব্যাংক রিপোর্টিং অ্যাক্টের অবশ্যই প্রয়োজন রয়েছে। তবে তা দুর্নীতি, অনিয়ম, জালিয়াতির তথ্য প্রকাশে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করার জন্য নয়। বরং এ ধরনের তথ্য যেন অবাধে প্রকাশিত হতে পারে, তার উপযোগী পরিবেশ সৃষ্টি করার জন্য। স্বার্থান্বেষী মহলের প্ররোচনায় বা চাপে যেনতেন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে ইতিমধ্যে ব্যাপক সংকটে জর্জরিত ব্যাংকিং খাতকে সমূলে ধ্বংসের দিকে ধাবিত না করার জন্য আমরা সরকারের প্রতি বিশেষ আহ্বান জানাচ্ছি।’

Comments

comments