বন্ধ ঘরে মা-ছেলের লাশ, মেয়ের গলায় আঙুলের ছাপ

সিলেটের মীরাবাজারে একটি বাড়ি থেকে মা ও ছেলের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। একই সঙ্গে ওই বাসা থেকে পাঁচ বছরের একটি শিশুকে উদ্ধার করা হয়েছে। তার গলায় আঙুলের ছাপ রয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। বাসার দরজা ভেতর থেকে বন্ধ ছিল।

আজ রোববার সকালে নগরের খারপাড়া এলাকায় একটি বাড়ির নিচতলা থেকে এই লাশ উদ্ধারের ঘটনা ঘটে।

নিহত মায়ের নাম রোকেয়া বেগম (৪০), ছেলের নাম রবিউল ইসলাম রুপন (১৬)। রুপন এবার এএসসি পরীক্ষা দিয়েছে। উদ্ধার হওয়া পাঁচ বছরের শিশুটি রোকেয়া বেগমের মেয়ে বলে জানিয়েছেন নিহত ব্যক্তিদের এক আত্মীয়।

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, খারপাড়া এলাকায় ওই বাড়ির নিচতলায় ছেলে ও মেয়েকে নিয়ে থাকতেন রোকেয়া বেগম। তাঁর স্বামী হেলাল আহমেদ পক্ষাঘাতে আক্রান্ত, ভাইয়ের সঙ্গে নগরের বারুদখানা এলাকায় থাকেন।

নিহত রোকেয়া বেগমের ভাই জাকির হোসেন জানান, তিনি প্রায়ই এ বাসায় আসেন। আজ সকালে আসার পর দরজা ভেতর থেকে বন্ধ পান। ধাক্কা দিলে ছোট্ট শিশুটি ভেতর থেকে জানায়, মা ও ভাইয়াকে মেরে ফেলেছে। এরপর তিনি পুলিশে খবর দেন। পুলিশ এসে দরজা খুলে লাশ উদ্ধার করে।

সিলেট কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গউসুল হোসেন ও কোতোয়ালি থানার সহকারী কমিশনার সাদেক কাউসার দস্তগীর ঘটনাস্থলে এসেছেন। তাঁরা জানান, শোয়ার ঘরের বিছানায় ওই নারীর লাশ পাওয়া যায়। তাঁর গলায় গভীর ক্ষত রয়েছে। ছেলেটার লাশ পাশের ঘরের বিছানার ওপরে পাওয়া যায়। শিশুটিকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। তাঁর গলায় আঙুলের ছাপ পাওয়া গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, ঘটনার সময় শিশুটি কিছুক্ষণ জ্ঞানহীন অবস্থায় ছিল।

Comments

comments