ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদে পুলিশে চাকরি, চারজন কারাগারে

সিরাজগঞ্জে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদ দাখিল করে পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি নেওয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার হওয়া চারজন। ছবি : এনটিভি

সিরাজগঞ্জে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদ দাখিল করে পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি নেওয়ার অভিযোগে আটক চার যুবককে প্রতারণার মামলায় জেলহাজতে পাঠিয়েছেন আদালত। আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে আদালতে নেওয়া হলে বিচারক তাঁদের জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এর আগে বুধবার রাতে নিজ নিজ বাড়ি থেকে চারজনকে আটক করা হয়। আজ সকালে তাঁদের বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা করা হয়। গ্রেপ্তার হওয়া চারজন হলেন সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার বাগবাটি ইউনিয়নের ধলডোব গ্রামের আব্দুল খালেক (১৯), খোড়ারগাঁতী গ্রামের ওবায়দুল হক (২৪) ও আব্দুল্লাহ আল মামুন (২৩) এবং কামারখন্দ উপজেলার চালা গ্রামের মুনসুর আলী (১৯)।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ দাউদ এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, আটককৃত যুবকরা জাল মুক্তিযোদ্ধা সনদ দাখিল করে পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরির আবেদন করেন। মুক্তিযোদ্ধা কোটায় প্রাথমিকভাবে তাঁদের চাকরি হয়। এরপর চূড়াড়ান্ত পুলিশী তদন্তে ওই চারজনের জাল সনদের বিষয়টি ধরা পড়ে। বুধবার রাতে তাঁদের আটক করা হয়। তাঁদের বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে প্রতারণার মামলা করেছে।

সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিন আহম্মেদ বলেন, ৬ মার্চ পুলিশ লাইনে বিভিন্ন কোটা ও নারী-পুরুষ মিলে ২০৭ জনকে পুলিশ কনস্টেবল পদে প্রাথমিকভাবে নিয়োগ দেওয়া হয়। পুলিশী তদন্তে জাল সনদের কারণে চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। এ ছাড়া বিবাহিত হওয়ায় আরো কয়েকজনকে নিয়োগ প্রক্রিয়া থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে।

Comments

comments