কষ্টার্জিত স্বাধীনতা রক্ষায় ইস্পাত কঠিন ঐক্যের বিকল্প নেই: শিবির সেক্রেটারি

বক্তব্য রাখছেন ইসলামী ছাত্রশিবিরের সেক্রেটারি জেনারেল মোবারক হোসাইন

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের সেক্রেটারি জেনারেল মোবারক হোসাইন বলেছেন, স্বাধীনতার চেতনাই হচ্ছে দলমত নির্বিশেষে বাংলাদেশকে এগিয়ে নেয়া। তাই কষ্টার্জিত স্বাধীনতা রক্ষায় ইস্পাত কঠিন ঐক্যের কোন বিকল্প নেই।

তিনি আজ সকালে রাজধানীর একটি মিলনায়তনে ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ আয়োজিত মহান স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভা ও দোয়ার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। মহানগরী সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কার্যকরী পরিষদ সদস্য শাফিউল আলমের সভাপতিত্বে ও মহানগরী সেক্রেটারি মাসুম তারিফের পরিচালনায় আলোচনায় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন ছাত্রনেতা মাঈনুল হাসান হিরা ও আহমদ হোসাইনসহ মহানগরীর বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

শিবির সেক্রেটারি জেনারেল বলেন, দীর্ঘ নয় মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে স্বপ্নের স্বাধীনতা অর্জিত হয়েছে। স্বাধীনতা পেলেও তার সুফল এখনও পায়নি এদেশের মানুষ। দীর্ঘদিন পেরিয়ে গেলেও স্বাধীনতার চেতনা বাস্তবায়নে তেমন অগ্রগতি নেই। সন্ত্রাস-দুর্নীতিতে নিমজ্জিত আমাদের প্রিয় বাংলাদেশ। প্রতিনিয়ত মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে। অর্থনীতিতে এখনও আমাদের মুক্তি মিলেনি। স্বাধীনতার চেতনা ছিলো গণতন্ত্র, আইনের শাসন ও শোষণমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠা। কিন্তু দেশে এখনো গণতন্ত্রের সুষ্ঠু বিকাশ ঘটেনি। উল্টো আন্তর্জাতিক ভাবে স্বৈরাচারী দেশের লজ্জাজনক তকমা জুটেছে জাতির কপালে। এখন গণতন্ত্রের ছদ্মাবরণে শাসক শ্রেণী দেশের জনসাধারণকে প্রতিনিয়ত শোষণ করে চলেছে।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার স্বাধীনতার চেতনা বাস্তবায়নের নামে জাতিকে বিভক্ত করছে। রাষ্ট্রীয় ভাবে দেশ প্রেমিক নাগরিকদেরকে হত্যা করা হচ্ছে। গুম ও নির্যাতনের মাধ্যমে বিরোধীদলকে দমানোর চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। দেশের উন্নয়নের নামে সম্পদ লুটপাটে ব্যস্ত। ফেলানী থেকে শুরু করে সীমান্তে নির্বিচারে বাংলাদেশীদের হত্যা নির্যাতন অবাধে অস্ত্র ও মাদক প্রবেশ কোন কিছুরই শক্ত প্রতিবাদ জানাতে পারেনি। সরকারে থেকে আধিপত্যবাদীদের বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগের নমনীয় ভাব দল হিসেবে তাদের অবস্থানকে জাতির সামনে তুলে ধরেছে। মূলত তারা বিভেদ ছড়িয়ে বাংলাদেশকে সাম্রাজ্যবাদী শক্তির ঘাঁটি বানাতে চায়।

তিনি আরো বলেন, দেশের স্বাধীনতা রক্ষা করতে ছাত্রজনতাকে সাথে নিয়ে কাজ করছে ছাত্রশিবির। ছাত্রশিবির একঝাঁক সৎ, দক্ষ ও দেশপ্রেমিক নাগরিক তৈরির মাধ্যমে সমৃদ্ধ একটি সোনার বাংলাদেশ গড়তে চায়। তাই আসুন বিবেধ ভুলে আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে সততা ও ন্যায় নীতির ভিত্তিতে একিটি সমৃদ্ধ দেশ গড়ি। যেখানে সকল মানুষের অধিকার নিশ্চিত হবে।

Comments

comments