আ’লীগের স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে যুবলীগের হামলা

মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আওয়ামী লীগের আলোচনাসভা চলছিল। সেখানে অতর্কিত হামলা ও ভাঙচুর চালালো যুবলীগ। আর ঘটনার বিচার চেয়ে থানা ঘেরাও করলো ছাত্রলীগ। সাতক্ষীরায় ঘটেছে এমন ঘটনা।

সোমবার (২৬ মার্চ) বিকাল ৫টায় সাতক্ষীরা শহরের শহীদ আলাউদ্দিন চত্বরে স্বাধীনতা দিবসে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনাসভা চলছিল। কর্মসূচিতে যুবলীগের একদল নেতাকর্মী হামলা চালায়। এ ঘটনায় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনছুর আহম্মেদ, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাদিকুর রহমানসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে।

এ ঘটনার পরপরই ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা সাতক্ষীরা সদর থানা ঘেরাও করে হামলাকারী যুবলীগ নেতা-কর্মীদের গ্রেফতারের দাবি জানান।

পৌর যুবলীগের আহবায়ক আব্দুল কাদের জানান, স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে বিকালে সাতক্ষীরা নিউ মার্কেট সংলগ্ন আলাউদ্দিন চত্বরে পৌর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় জেলা যুবলীগের আহবায়ক আব্দুল মান্নানের নেতৃত্বে একটি মিছিল সেখানে উপস্থিত হয়। সভাস্থলে পৌঁছে মান্নান স্টেজে উঠে মাইক কেড়ে নিয়ে বলে, আজ থেকে খেলা শুরু। আমার বিরুদ্ধে যারা মিছিল মিটিং করছে, তাদেরকে এখন খেলা দেখাবো। এতে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও তাঁতী লীগের সভাপতি প্রতিবাদ করলে মান্নানের নেতৃত্বে মঞ্চে থাকা অতিথিদের উপর হামলা চালানো হয়। হামলায় জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দসহ অন্তত ১০জন আহত হয়।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল ইসলাম রেজা জানান, ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ মিছিল নিয়ে নিউ মার্কেট এলাকার কর্মসূচিতে যোগ দেওয়ার প্রাক্কালে বসুন্ধরা মার্কেটের সামনে মান্নান, তুহিন ও মনোয়ার হোসেন অনুর নেতৃত্বে লোহার রড, হকিস্টিক, রাম দা নিয়ে তাদের উপর হামলা চালানো হয়। এতে তাদের কয়েকজন সদস্য আহত হয়েছে। জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদিকুর রহমান ও তৌকিরের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মারুফ আহমেদ জানান, আওয়ামী লীগের কর্মসূচির ব্যাপারে আমাদের আগে থেকে কিছুই জানানো হয়নি। ঘটনা শুনে পুলিশ দ্রুত সেখানে পৌঁছায় এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। এখন সবকিছু স্বাভাবিক।

এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

Comments

comments