আবিদের পাশেই শায়িত হবেন আফসানা

নেপালে বিধ্বস্ত ইউ-এস বাংলার বিমানের পাইলট আবিদ সুলতান ও স্ত্রী আফসানা খানম। ছবি: সংগৃহীত

নেপালের কাঠমান্ডুতে ইউ এস-বাংলার বিমান দুর্ঘটনায় নিহত পাইলট আবিদ সুলতানের স্ত্রী আফসানা খানমকে স্বামীর পাশেই দাফন করা হবে।

২৩ মার্চ, শুক্রবার বিকেলে বাদ আছর উত্তরার ১৩ নম্বর সেক্টর জামে মসজিদে জানাজা হবে। এরপর বনানী কবরস্থানে দাফন করা হবে বলে তার পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন।

সকাল সাড়ে ৯টার দিকে রাজধানীর ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্স অ্যান্ড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় আফসানার।

তার মৃত্যুর খবর পেয়ে হাসপাতালে ছুটে আসেন আত্মীয়-স্বজনরা। পরে চার ঘণ্টা পর দুপুর দেড়টায় আফসানার বাবা ও ভাইয়ের কাছে তার মরদেহ হস্তান্তর করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। স্বজনরা তার মরদেহ হাতে পেয়ে একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে উত্তরার ১৩ নম্বর সেক্টরে তাদের ভাড়া বাসায় নিয়ে যান।

আফসানার ফুপাতো ভাই শহীদুল ইসলাম জানান, আবিদ সুলতান ও আফসানা উত্তরার যে বাসায় ভাড়া থাকতেন, সেখানে মরদেহ নেওয়া হয়েছে। গোসল শেষে বিকেলে ওই এলাকার স্থানীয় মসজিদে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। সে জানাজায় আত্মীয়-স্বজন ও শুভাকাঙ্খীরা অংশে নেবেন। এরপর বনানী করবস্থানে তাকে স্বামীর পাশে শায়িত করা হবে।

তার মৃত্যুর পর নিউরোসায়েন্স হাসপাতালের যুগ্ম পরিচালক ও আফসানা খানমের চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ডের প্রধান বদরুল আলম জানান, আফসানা স্টোক করে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। ১৮ মার্চ তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে নেওয়া হয়। এরপর তার শারীরিক চিকিৎসার জন্য মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়। ১৮ মার্চের পর থেকে তিনি নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রেই ছিলেন। শুক্রবার সকালে তিনি মারা গেছেন।

নেপালে ইউএস-বাংলার বিমান বিধ্বস্তের পর থেকেই উদ্বিগ্ন ছিলেন আফসানা। যদিও প্রথমে তাকে জানানো হয়েছিল আবিদ আহত অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছেন। কিন্তু পরে তার মৃত্যুর সংবাদে স্ত্রী আফসানা ভেঙে পড়েন এবং সে স্টোক করেন।

Comments

comments