অসুস্থ মাকে দেখতে গিয়ে গ্রেফতার হলেন জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমীর

জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমীর ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মুজিবুর রহমান

অসুস্থ মাকে দেখতে গিয়েই গ্রেফতার হলেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমীর ও রাজশাহী-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক মুজিবুর রহমান। মায়ের সাথে দেখা করে স্থানীয় জামায়াতের শীর্ষ কয়েকজন নেতার সাথে দেখা করেন তিনি। এসময় ভারপ্রাপ্ত আমীরের সাথে দেখা করতে আসা নেতৃবৃন্দসহ বরেণ্য রাজনীতিবিদ অধ্যাপক মুজিবকে আটক করে পুলিশ। রাজশাহী মহানগর জামায়াতের নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমীর মুজিবুর রহমান সহ আটককৃত জামায়াত নেতৃবৃন্দ

আটক অন্য নেতারা হলেন- -বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমীর অধ্যাপক মুজিবর রহমান, রাজশাহী মহানগরী আমীর অধ্যাপক আবুল হাশেম, রাজশাহী মহানগরী সেক্রেটারি সিদ্দিক হোসাইন, আব্দুল খালেক-আমীর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আমীর আবু জর গিফারী, সাবেক চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আমীর রফিকুল ইসলাম, রাজশাহী জেলা পূর্ব আমীর রেজাউর রহমান,  রাজশাহী জেলা পূর্ব নায়েবে আমীর মাইনুল ইসলাম, বোয়ালিয়া থানা সহকারী সেক্রেটারী মুজিবুর রহমান ইসলামী ছাত্রশিবিরের রাজশাহী জেলা পশ্চিম সভাপতি তৈয়ব আলী।

উল্লেখ্য, অধ্যাপক মুজিবুর রহমান রাজশাহী-১ আসনের নির্বাচিত সংসদ সদস্য ছিলেন।

গত বছরের ৯ অক্টোবর রাতে রাজধানীর উত্তরা থেকে জামায়াতের আমির মকবুল আহমাদ ও সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমানসহ বেশ কয়েকজন নেতাকে গ্রেফতার করা হয়।

পরদিন অধ্যাপক মুজিবুর রহমান জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমির ও এটিএম মাসুম ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেলের দায়িত্বে আসেন।

বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই জামায়াতের উপর দমন নির্যাতনের স্টীমরোলার চালানো হচ্ছে। এ পর্যন্ত দলটির সাবেক আমির মতিউর রহমান নিজামী ও সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদসহ কেন্দ্রীয় ৫ নেতাকে বিতর্কিত যুদ্ধাপরাধের বিচারের মাধ্যমে ফাঁসি দেয়া হয়েছে।

দীর্ঘ ৮-৯ বছরের সরকারি দমন পীড়নে দলটির হাজার হাজার নেতাকর্মী নিহত, আহত ও পঙ্গুত্ব বরণ করেছে। সরকারের পক্ষ থেকে দলটিকে বারবার বিএনপির সঙ্গ ছাড়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করা হলেও জামায়াত রাজি হয়নি। এজন্য তাদের উপর নির্যাতনের মাত্রা আরো বেড়েছে। এছাড়া জামায়াতকে দমনে প্রতিবেশি দেশের ইন্ধন রয়েছে বলেও মনে করেন অনেকে।

Comments

comments