বেগম জিয়া ছাড়া নির্বাচন হতে দেয়া হবে না: বিএনপি

বেগম জিয়ার মুক্তির দাবীতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনে জনতার ঢল

বেগম জিয়াকে ছাড়া দেশে কোনো নির্বাচন হতে দেয়া হবে না বলে মন্তব্য করে বিএনপি’র শীর্ষনেতারা বলেছেন, আন্দোলনের মাধ্যমে নিদর্লীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে ক্ষমতাসীনদের বাধ্য করা হবে।

রাজধানীতে দলের চেয়ারপারসনের মুক্তি দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে এ মন্তব্য করেন তারা। এসময় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করেন, নির্বাচন থেকে দূরে সরিয়ে রাখতেই মিথ্যা মামলায় বেগম জিয়াকে সাজা দেয়া হয়েছে।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কারামুক্তির দাবিতে পূর্বঘোষিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশ নিতে মঙ্গলবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সমবেত হন দলের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা। এতে যোগ দেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ শীর্ষনেতারা।

কর্মী সমাগমে নির্ধারিত সময় বেলা ১১টার আগেই রাজপথের একপাশের সিংহভাগ অংশ পরিপূর্ণ হয়ে যায়। এতে মানববন্ধন পরিণত হয় অনেকটা মঞ্চবিহীন সমাবেশে।

মানববন্ধন চলাকালে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বিএনপি নেতারা বলেন, বেগম জিয়াকে ছাড়া দেশে কোনো নির্বাচন হতে দেয়া হবে না।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, ‘নির্বাচনের আগে পার্লামেন্ট ভেঙ্গে দিতে হবে। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে।’

বিএনপিকে নির্বাচনের বাইরে রাখতেই মিথ্যা মামলায় বেগম জিয়াকে সাজা দেয়া হয়েছে বলে মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল।

প্রায় এক ঘণ্টাব্যাপী কর্মসূচির শেষের দিকে স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবুকে আটক করে সচিবালয়ের ভেতরে নিয়ে যায় পুলিশ।

এ সময় পুলিশের আচরণে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রেসক্লাব সংলগ্ন সচিবালয়ের গেটে ভাঙচুর চালায় বিক্ষুব্ধ কর্মী সমর্থকরা।

Comments

comments