পাপুয়া নিউগিনিতে ৭.৫ মাত্রার ভূমিকম্প

পাপুয়া নিউগিনির (পিএনজি) দক্ষিণাঞ্চলীয় পার্বত্য প্রদেশে ৭ দশমিক ৫ মাত্রার শক্তিশালী একটি ভূমিকম্প হয়েছে। স্থানীয় সময় সোমবার রাত ৩টা ৪৫ মিনিটে ভূপৃষ্ঠের ৩৫ কিলোমিটার গভীর থেকে ভূকম্পনটির উৎপত্তি হয়।

ভূমিকম্পের পর উদ্ধার কাজে পার্বত্যাঞ্চলে সেনা পাঠিয়েছে দেশটি।

যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএস) জানিয়েছে, রাজধানী পোর্ট মোরসবি থেকে প্রায় ৫৬০ কিলোমিটার দূরে দেশটির প্রধান দ্বীপের কেন্দ্রস্থলের কাছে এটির উৎপত্তিস্থল।

ভোররাতের এ ভূমিকম্পের কারণে খনিজ তেল ও প্রাকৃতিক গ্যাসসমৃদ্ধ ওই প্রদেশটিতে খনি কোম্পানির কার্যক্রমে বিঘ্ন ঘটেছে।
পাপুয়া নিউগিনির জাতীয় দুর্যোগ কেন্দ্রের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, ঘটনাস্থল দূর প্রত্যন্ত এলাকায় হওয়ায় ও যোগাযোগব্যবস্থা ভেঙে পড়ায় ক্ষতির পরিমাণ নিরুপণ করা সম্ভব হয়নি।

হাওয়াইতে অবস্থিত প্রশান্ত মহাসাগরীয় সুনামি সতর্কীকরণ কেন্দ্র জানিয়েছে, ভূমিকম্পের পর সুনামির কোনো ঝুঁকি তৈরি হয়নি।
পিএনজি সরকারের মুখ্য সচিব আইজ্যাক লুপারি বলেন, সবাইকে বহুতল ভবনের বাইরে থাকার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। কারণ ভূমিধসের আশঙ্কা রয়েছে। এর আগে এমনটি ঘটেছিল।

ভূমিকম্প বিশেষজ্ঞ ফেলিক্স তারানু বলেন, কেউ কেউ পোর্জেরা খনিতে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন ও বিভিন্ন ভবনের ক্ষতিগ্রস্তের ছবি ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন। তবে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। উৎপত্তিস্থল থেকে ১৬৮ কিলোমিটার দূরের হাগেন পাহাড়ে শক্তিশালী কম্পন অনুভূত হয়েছে।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের পরিচালক ক্রিস ম্যাককি বলেন, তিনি এখনও ক্ষতির কোনো খবর পাননি। তবে উত্তর হাইল্যান্ডের মেন্ডিতে কয়েকটি মৃত্যুর খবর পেয়েছেন। তবে তা এখনও নিশ্চিত করা যায়নি।

ইউএসজিএস বলেছে, হতাহত ও ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। কারণ এর আগের ভূমিকম্পে সেখানে ভূমিধসের ঘটনা ঘটেছিল।

Comments

comments