শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভে পুলিশের হামলা, জনপ্রতিনিধিকে ক্রসফায়ারের হুমকি : গুলিবিদ্ধ ২০

মেয়র জি কে গ্উছ কে গ্রেফতার করে নিয়ে যাচ্ছে পুলিশ

হবিগঞ্জে বিএনপির শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিলে বাধা দেওয়াকে কেন্দ্র করে পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ হয়। এতে জেলা যুবলদলের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াছসহ ২০ জন গুলিবিদ্ধ হন। আহত হন অন্তত ৫০ জন।

গুলিবিদ্ধরা হলেন- জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মিয়া মোহাম্মদ ইলিয়াছ, জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ সভাপতি জিল্লুর রহমান, সদর থানা যুবদলের সিনিয়র সহ সভাপতি অলিউর রহমান, ছাত্রদল নেতা জিবলু আহমেদ, আবুল বাশার ইছা, আব্দুল হান্নান, বাদশা সিদ্দিকী, বিজয় টিভির জেলা প্রতিনিধি ইলিয়াছ আলী মাসুক।

মঙ্গলবার দুপুরে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জিকে গউছের নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে জেলা বিএনপি একটি বিক্ষোভ মিছিল তাদের দলীয় কার্যালয় থেকে বের করতে চাইলে পুলিশ বাধা দেয়। পুলিশ মারমুখী হয়ে উঠলে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে পুলিশ লাঠিচার্জ করলে দুই পক্ষের সংঘর্ষে বাধে। পুলিশ শর্টগানের গুলি ছুড়লে জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াছসহ অন্তত ২০ জন গুলিবিদ্ধ হন। আহত হন ৫০ জন।

হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জিকে গউছ দাবি করে বলেন, ‘বিএনপি শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিল করতে চাইলে ডিবি পুলিশের ওসি শাহ আলম তাকে ক্রস ফায়ারের হুমকি দিলে তাদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করে। এ সময় পুলিশ তাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে গুলি ছোড়ে। এতে আমাদের শতাধিক নেতাকর্মী আহত হন।

Comments

comments