প্রশ্নফাঁস যুগ যুগ ধরে চলে আসছে: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, প্রশ্নফাঁস যুগ যুগ ধরে চলে আসছে। পরীক্ষার বিশ মিনিট আগে প্রশ্নফাঁস হলে আপনি কী করবেন? এক ঘণ্টা বা দুঘণ্টা আগে প্রশ্নফাঁস হয়ে কারো কারো কাছে চলে গেলে সেই প্রশ্ন দেখে উত্তর খুঁজে বের করে পরে পরীক্ষার হলে গিয়ে লেখার মতো ট্যালেন্ট ছাত্র কে আছে? কতজন আছে? কে প্রশ্নফাঁস করেছে আপনি বলেন, সচিব করেছে, মন্ত্রী করেছে? আপনারা সাংবাদিক আপনারা বলেন- কে করেছে? আপনারা একজনকে চিহ্নিত করে দিন, আমরা তাকে শাস্তি দেব।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখন সবার হাতে মোবাইল ইন্টারনেট, সবার হাতে ফোন। এখন যে কেউ প্রশ্নের ছবি তুলে ফাঁস করে দিতেই পারে। এতে আমাদের কী করার আছে? যদি ২৪ ঘণ্টা আগে ফাঁস হয়, দুদিন আগে হয় তাহলে একটা কথা। তাতো হচ্ছে না।

“এ জন্য মন্ত্রীকে গালি দিতে হবে, সচিবকে গালিতে হবে, মন্ত্রীকে চলে যেতে হবে- এতে কি প্রশ্নফাঁস বন্ধ হয়ে যাবে? আপনারা কি চান ইন্টারনেট বন্ধ করে দিব? আপনারা বলেন, আপনারা পক্ষে লিখেন, আমরা বন্ধ করে দিব। যখন প্রশ্ন যাচ্ছে তখন কে ছবি তুলে পাঠালো-আপনারা ধরে দেন। আমরা শাস্তি দেব। কোনো দিকে দোষ না পেয়ে একটা দিকে খোঁচাখুচি!

সোমবার বিকেল ৫টায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। এর আগে বিকেল সাড়ে ৪টায় শুরু হয় এ সংবাদ সম্মেলন।

Comments

comments