খুলনায় চলছে অঘোষিত হরতাল

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার রায় ঘিরে খুলনায় যেন অঘোষিত হরতাল চলছে। চারদিকে চরম উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা বিরাজ করছে। রিকশা ছাড়া কোনো যানবাহনই চলাচল করছে না নগরীতে। কী রায় হবে, রায়ের প্রতিক্রিয়া কী হবে তা নিয়ে মানুষের প্রশ্নের শেষ নেই।

বুধবার রাত ১২টা থেকে শুক্রবার রাত ১২টা পর্যন্ত সকল প্রকার লাঠি, আগ্নেয়াস্ত্র ও বিস্ফোরক দ্রব্য বহন নিষিদ্ধ করেছে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ (কেএমপি)। নানা আশঙ্কায় শহরের বেশির ভাগ স্কুল ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেও ছেলে-মেয়েদের পাঠাচ্ছেন না অভিভাবকরা।

বৃহস্পতিবার সরেজমিনে দেখা গেছে, মহানগরীর অধিকাংশ দোকানপাটই বন্ধ। দুএকটি ফুটপাতের চা ও মুদি দোকান খোলা দেখা গেছে। প্রবেশের সবগুলো পথে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। বসানো হয়েছে তল্লাশি চৌকি। নিরাপত্তায় বাড়ানো হয়েছে পুলিশ সদস্যের সংখ্যাও। বাড়ানো হয়েছে টহল। মহানগর বিএনপি অফিসের সামনের সড়কে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা অবস্থান নিয়েছে। খুলনা থেকে ঢাকাসহ দূরপাল্লার পরিবহন বন্ধ রয়েছে। শহরে গণপরিবহনও চলছে তুলনামূলক কম।

খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের মুখপাত্র ও স্পেশাল ব্রাঞ্চের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মনিরা সুলতানা বলেন, খুলনার গুরুত্বপূর্ণ ৩৬টি পয়েন্টে তল্লাশির জন্য নিরাপত্তা চৌকি বসানো হয়েছে। মহানগরীতে ২৪টি মোবাইল টহল টিম কাজ করছে। বাড়ানো হয়েছে র‌্যাবের টহল। যেকোনো সময় বিজিবি নামার কথা রয়েছে বলেও জানান তিনি।

Comments

comments