ছিনতাইকারীরা কেড়ে নিল ২ জনের প্রাণ

রাজধানীর সায়েদাবাদ ও ধানমণ্ডি এলাকায় ছিনতাইয়ের কবলে পড়ে নারীসহ দুজন নিহত হয়েছেন। আজ শুক্রবার ভোরের দিকে এ দুটি ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার ভোরে ধানমণ্ডিতে ৭ নম্বর সড়কে প্রাইভেটকারে আসা ছিনতাইকারীর দল হাত থেকে ব্যাগ টেনে ছিনিয়ে নেওয়ার সময় সেই গাড়ির চাকায় পিষ্ট হয়ে নিহত হয়েছেন ধানমণ্ডির আনোয়ার খান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের একজন নার্স। মেডিকেল কলেজের কোয়ার্টারেই তিনি থাকতেন।

ধানমণ্ডি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. পারভেজ ইসলাম জানান, বরিশালে ছুটি কাটিয়ে শুক্রবার ভোরে স্বামী মনিরুল ইসলামের সঙ্গে লঞ্চে করে ঢাকায় ফেরেন হেলেনা।

সদরঘাট থেকে বাসে করে ধানমণ্ডি ৭ নম্বর রোডে নেমে রাস্তা পার হওয়ার সময় ছিনতাইকারীর কবলে পড়েন চল্লিশোর্ধ হেলেনা।

মনিরুলের বরাত দিয়ে পরিদর্শক পারভেজ বলেন, রাস্তা পার হওয়ার সময় একটি সাদা রংয়ের প্রাইভেটকার থেকে ছিনতাইকারীরা হেলেনার ব্যাগ ধরে টান দেয়। হেঁচকা টানে বেসামাল হেলেনা সামনে পড়ে যান এবং তার ওপর দিয়েই গাড়ি চালিয়ে চলে যায় ছিনতাইকারীরা।

তিনি বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। ছিনতাইকারীদের চিহ্নিত করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

যাত্রাবাড়ী এলাকায় নিহত হয়েছেন ওয়ার্কশপ ব্যবসায়ী ইব্রাহিম (৩৩)। ইব্রাহিমের গ্রামের বাড়ি খুলনা জেলার সোনাডাঙ্গা উপজেলায়। তিনি মৃত বজলুর রহমানের ছেলে। আর হেলেনা বেগম রাজধানীর কলাবাগানের গ্রিন কর্নার এলাকার বাসিন্দা। তাঁর স্বামীর নাম মনিরুল ইসলাম মন্টু।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) বাচ্চু মিয়া জানান, যাত্রাবাড়ীসংলগ্ন সায়েদাবাদ রেলগেটের পাশে ছিনতাইকারীর ছুরির আঘাতে ইব্রাহিম আহত হন। তাকে প্রথমে পুরান ঢাকার সালাউদ্দিন হাসপাতাল এবং পরে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। আজ সকাল ৬টায় তিনি মারা যান।

Comments

comments