বছরে ৩২ হাজার কোটি টাকা ভারত চলে যাচ্ছে

বেসরকারি গবেষণা সংস্থা পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউট (পিআরআই) আয়োজিত গোলটেবিল বৈঠকে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী মো. আমিনুল ইসলাম। বনানী, ঢাকা, ২০ জানুয়ারি। ছবি: প্রথম আলো

বাংলাদেশের শিল্প খাত ও ব্যবসা-বাণিজ্যে যেসব ভারতীয় নাগরিকেরা কাজ করেন, তারা বছরে ৩২ হাজার কোটি টাকা বৈধ পথে ভারতে নিয়ে যান।

বেসরকারি গবেষণা সংস্থা পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউট (পিআরআই) আয়োজিত এক গোলটেবিল বৈঠকে এ তথ্য জানিয়েছেন বাংলাদেশ এন্টারপ্রাইজ ইনস্টিটিউটের (বিইআই) প্রেসিডেন্ট সাবেক রাষ্ট্রদূত ফারুক সোবহান। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সঙ্গে আলাপের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, অবৈধ পথে যে টাকা যায়, তা বিবেচনায় নিলে মোট পরিমাণ দ্বিগুণ হবে।

দেশের ব্যবসা ক্ষেত্রে পরিবেশের উন্নতি নিয়ে পিআরআই আজ শনিবার বনানীতে তাদের কার্যালয়ে এ গোলটেবিল বৈঠকের আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী মো. আমিনুল ইসলাম। পিআরআইয়ের নির্বাহী পরিচালক আহসান এইচ মনসুরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এমসিসিআই) সভাপতি নিহাদ কবির, পোশাক রপ্তানিকারকদের সংগঠন বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি পারভেজ আলম চৌধুরী, বিশ্বব্যাংক গোষ্ঠীর ঢাকা কার্যালয়ের প্রতিযোগিতা সক্ষমতা বিভাগের জ্যেষ্ঠ অর্থনীতিবিদ মাশরুর রিয়াজ, ঢাকা চেম্বারের সভাপতি আসিফ ইব্রাহিম প্রমুখ বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, দেশের শিক্ষাব্যবস্থার সঙ্গে কর্মবাজারের কোনো যোগ নেই। এ কারণে দেশে শিক্ষিত তরুণেরা বেকার থাকে। আবার বিদেশ থেকে কর্মী এনে কাজ করাতে হয়।

ফারুক সোবহান বলেন, ‘আমাদের দেশে বিভিন্ন পর্যায়ে দক্ষতার উন্নয়নের ব্যবস্থা নিতে হবে।’

Comments

comments