খেলা চলাকালে ফুটবলারকে লাথি মারলেন রেফারি

আগে লাথি মেরেছেন, পরে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখিয়ে মাঠ থেকে বের করে দিয়েছেন। ছবি: রয়টার্স

মাঠে খেলোয়াড়দের অখেলোয়াড়ি আচরণ ধরাই রেফারিদের কাজ। কিন্তু ফ্রেঞ্চ লিগে নিজেই অখেলোয়াড়ি আচরণ করে খবরের শিরোনাম হয়েছেন টনি শ্যাপরন নামের এক রেফারি। খেলা চলাকালে এক খেলোয়াড়কে লাথি মেরেছেন। এর পরেও থামেননি ম্যাচের দায়িত্বে থাকা প্রধান রেফারি। লাথি মারার পরে সেই খেলোয়াড় ডিয়েগো কার্লোসকেই আবার দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখিয়ে মাঠ থেকে বের করে দিয়েছেন তিনি।

ফুটবলারকে লাথি মারছেন রেফারি। ইউটিউব থেকে সংগৃহীত

রবিবার নঁতের বিপক্ষে ১-০ গোলে জয় পেয়েছে প্যারিস সেন্ট জার্মেই। সে ম্যাচেরই ঘটনা এটি। ডি মারিয়ার গোলে এক গোলে এগিয়ে আছে পিএসজি। ম্যাচের শেষ মুহূর্তে কাউন্টার অ্যাটাক থেকে আরও একটি গোল পেতে যাচ্ছিল তারা। সেই আক্রমণ প্রতিহত করতে গিয়ে দৌড়াচ্ছিলেন কার্লোস। ওই সময় অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে নঁতের ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে পড়ে যান রেফারি। রেফারি মাঠে বসে থাকা অবস্থাতেই প্রথমে কার্লোসকে লাথি মারেন। পরবর্তী সময়ে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখিয়ে মাঠ থেকে বের করে দেন!

কাজটি যে সঠিক করেননি, সেটা খেসারত দিয়েই বুঝছেন শ্যাপরন। লিগ কর্তৃপক্ষ অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য নিষিদ্ধ করেছে তাকে। পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত ৪৬ বছর বয়সী এই রেফারি আর কোনো ম্যাচের দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না।

Comments

comments