ভারতে বাঙালি প্রধানমন্ত্রী চান প্রণব

ভারতে রাষ্ট্রপতি পদে তিনি ছিলেন প্রথম বাঙালি। এ বার তার সাধ, দেশটিতে একজন বাঙালি প্রধানমন্ত্রী।

সোমবার পশ্চিমবঙ্গের হাওড়ায় আমতার একটি স্কুলের অনুষ্ঠানে সেই ইচ্ছা ব্যক্ত করেন প্রণব মুখোপাধ্যায়।

এ দিন আমতার তাজপুরে এম এন রায় ইনস্টিটিউশনের অনুষ্ঠানেক এসেছিলেন প্রণববাবু। এই স্কুলে তিনি শিক্ষক হিসাবে কর্মজীবন শুরু করেছিলেন। বক্তৃতায় তিনি বলেন, ‘আমি রাষ্ট্রপতি হয়েছি ঠিকই। কিন্তু এখনও পর্যন্ত কোনও বাঙালি প্রধানমন্ত্রী আমরা পাইনি। বাঙালিদের জন্য এই পদটি খালি আছে।’

এ কথা বলার পরেই তিনি পশ্চিমবঙ্গের প্রথম নারী মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাজকর্মের ভূয়সী প্রশংসা করতে থাকেন।

১৯৫৭ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে এই শিক্ষক হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি। খুব বেশিদিন অবশ্য ছিলেন না। তবে তাঁর এই স্বল্পমেয়াদি শিক্ষক জীবনকে যে তিনি ভুলতে পারেননি, সেকথা জানিয়ে প্রণববাবু বলেন, ‘মাস তিন-চার পরে আমি চলে যাই। তারপরে অন্য স্কুল, কলেজে প্রায় দশ বছর পড়িয়েছি। সেটাও ছেড়ে দীর্ঘ ৪৮ বছর ধরে রাজনীতি করেছি। কিন্তু প্রথম চাকরির কথা আমি ভুলিনি।’

তার বক্তব্য, ‘এই স্কুলের একজন শিক্ষক পরবর্তীকালে রাষ্ট্রপতি হয়েছেন বলে এমন ধারণা করা ঠিক হবে না যে, এই স্কুলের শিক্ষক বলেই আমি রাষ্ট্রপতি হতে পেরেছি। কিন্তু ছাত্র-ছাত্রীদের একটা কথা বলতে পারি, সম্ভাবনা সবার মধ্যে আছে। তার সদ্ব্যবহার করে এই স্কুলের কোনও ছাত্র কেন প্রধানমন্ত্রী হতে পারবে না!’

স্কুলের অনুষ্ঠান থেকে ফেরার পথে আমতা কলেজ মোড়ের কাছে প্রণববাবু কিছুটা অসুস্থ বোধ করেন। সঙ্গে থাকা মেডিক্যাল টিমের চিকিৎসকদের সহায়তায় সঙ্গে সঙ্গে তিনি সুস্থ হন। চিকিৎসকরা জানান, সুগার আচমকা কমে যাওয়াতেই এই ঘটনা।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

Comments

comments