ফার্মগেইটে অনুমতিহীন কুতুববাগীর ওরশের তোরণ ভেঙে দিল ডিএনসিসি

কুতুববাগ দরবার শরীফের বার্ষিক ওরশের জন্য অনুমতি ছাড়াই ঢাকার ফার্মগেইটে শহীদ আনোয়ারা পার্কে বানানো অস্থায়ী তোরণ ভেঙে দিয়েছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন-ডিএনসিসি।

ওরসে আসা লোকজনের জন্য পার্কের ভেতরে মঞ্চ তৈরির জন্য রাখা বাঁশ এবং অন্যান্য সরঞ্জামও জব্দ করা হয়েছে।

উত্তর সিটি করপোরেশনের অঞ্চল ৫ এর নির্বাহী কর্মকর্তা অজিয়র রহমানের নেতৃত্বে একটি দল রোববার সকালে এই অভিযান চালায়।

বেলা সাড়ে ৯টা পর্যন্ত ওই অভিযান চলার সময় কুতুববাগ দরবার শরীফের কেউ কোনো বাধা দেয়নি।

অজিয়র রহমান বলেন, “তারা অনুমতি ছাড়াই সেখানে অবৈধভাবে গেইট তৈরি করে ফেলেছিল। সেজন্য ভেঙে দিয়েছি। আর পার্কের ভেতরে বাঁশ জমিয়ে রেখেছিল। এগুলো আমরা সরিয়ে দিয়েছি।”

নারায়ণগঞ্জের বন্দর থানার কুতুববাগ দরবারের এই ওরশ এক সময় কদমরসুল এলাকায় নিজস্ব স্থায়ী দরগাতেই হত। কিন্তু গত শতকের নব্বইয়ের দশক থেকে ঢাকার ফার্মগেইটে ইন্দিরা রোড ও খামারবাড়ির মাঝামাঝি আনোয়ারা পার্কে ওই ওরশের আয়োজন শুরু হয়।

এ আয়োজন ঘিরে প্রায় মাসব্যাপী মঞ্চ সাজানোর কাজ, আলোকসজ্জা, এবং দান হিসাবে আসা পশু ইন্দিরা রোড ও খামারবাড়িতে রাখার কারণে প্রতিবছরই দুর্ভোগের অভিযোগ করে আসছিলেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

ওই অভিযোগের প্রেক্ষিতে গতবছর সিটি করপোরেশন হস্তক্ষেপ করলে সংক্ষিপ্ত আকারে ওই ওরশের আয়োজন করে কুতুববাগীরা।

সে সময় তারা প্রতিশ্রুতি দেন, এরপর আর ফার্মগেইটে এ আয়োজন না করে আয়োজনটি ঢাকার বাইরে সরিয়ে নেওয়া হবে।

সে বিষয়টি স্মরণ করিয়ে দিয়ে সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা অজিয়র রহমান বলেন, “তারা গত বছর আমাদের কমিটমেন্ট দিয়েছিল যে গত বছরই শেষ। এরপর তারা বাইরে করবে। বাইরে বলতে আনোয়ারা পার্কের বাইরে নয়, ঢাকার বাইরে নিয়ে যাওয়ার লিখিত প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল তারা। সেই অঙ্গীকারের কপিও আছে আমাদের কাছে।”

ওই দরবারের খাদেম মির্জা মাহবুব সুলতান বাচ্চুর ভাষ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে এই দরবারের ৬৭ লাখ অনুসারী রয়েছে। প্রতি বছর সৌদি আরব, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ডসহ বিভিন্ন দেশ থেকে ভক্তরা ওরশে যোগ দিতে আসেন।

Comments

comments