বিজয় র‌্যালীতে পুলিশ এবং ছাত্রলীগের হামলা : ছাত্রশিবিরের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

চট্রগ্রাম ও লালমনিরহাটে ছাত্রশিবিরের বিজয় দিবসের র‌্যালীতে পুলিশ এবং ছাত্রলীগের হামলা ও গ্রেপ্তারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির।

এক যৌথ প্রতিবাদ বার্তায় ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত ও সেক্রেটারি জেনারেল মোবারক হোসাইন বলেন, মহান বিজয় দিবসের শান্তিপূর্ণ র‌্যালীতে হামলা চালিয়ে পুলিশ ও ছাত্রলীগ দেশ, স্বাধীনতা ও বিজয় দিবসের চেতনার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। বিজয় র‌্যালীতে হামলা চেতনা ব্যবসায়ীদের মুখোশ জাতির সামনে উন্মোচিত করে দিয়েছে। ৪৬তম মহান বিজয় দিবস উদযাপনে ছাত্রশিবির সকাল সাড়ে ৮টায় নগরীর লালদিঘী মোড় এলাকা থেকে শান্তিপূর্ণ র‌্যালী শুরু করলে পেছন থেকে বিনা উস্কানীতে পুলিশ- ছাত্রলীগ যৌথ ভাবে হামলা চালায়। তাদের এই যৌথ বর্বর হামলায় অর্ধ-শতাধিক নিরপরাধ ছাত্র আহত ও ২৪জনকে আটক করা হয়। অন্যদিকে লালমনিরহাটেও বিজয় দিবসের শান্তিপূর্ণ র‌্যালীতে হামলা চালিয়ে ৫জন নিরপরাধ ছাত্রকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। জাতির এই মহান দিনটিতেও পুলিশি এবং ছাত্রলীগ তাদের দায়িত্বহীনতা ও সন্ত্রাসী আচরণ সংযত করতে পারেনি। বিজয় দিবসের শান্তিপূর্ণ র‌্যালীতে হামলা ও ছাত্রদের গ্রেপ্তার করে সেবাদাস পুলিশ ও সরকারের পেটুয়া বাহিনী ছাত্রলীগ বিজয় দিবসের মর্যাদাকে ভূলুন্ঠিত করেছে।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, এরাই মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশ গড়ার কথা বলে। অথচ বিজয়ের চেতনাকে লালন করে যারা এগিয়ে যেতে চায় তাদের উপর এই হামলা গ্রেপ্তার চালিয়ে তাদের আসল চেহারা জাতির সামনে উন্মোচিত করেছে। ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীদের মদদ দিতে গিয়ে রাষ্ট্রের সেবকের লেবাস ধারণ করে জনগণের সাথে প্রতারণা করে যাচ্ছে পুলিশ। এমন ঘৃন্য আচরণ কোন ভাবেই কাম্য নয়। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই।

নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে গ্রেপ্তারকৃত ছাত্রদের নি:শর্ত মুক্তির দাবি জানান। একই সাথে হামলাকারী ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার করে তাদের শাস্তির আওতায় আনতে হবে এবং ভবিষ্যতে এ ধরণের অগণতান্ত্রিক আচরণ বিরত থাকার আহ্বান জানান।

Comments

comments