রাজধানীতে ট্রাম্পবিরোধী বিক্ষোভ

জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী ঘোষণা দেওয়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পবিরোধী বিক্ষোভ মিছিল করেছে বেশ কয়েকটি ইসলামি রাজনৈতিক দল ও সংগঠন। শুক্রবার (১৫ ডিসেম্বর) জুমার নামাজের পর বায়তুল মোকাররমে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল করেছে তারা। মিছিল থেকে মার্কিন পণ্য বর্জনের আহ্বান জানানো হয়।

মাওলানা আবু তাহের জিহাদীর নেতৃত্বে মিছিল করে ইসলামি কানুন বাস্তবায়ন কমিটি। বায়তুল মোকররমের উত্তর গেট থেকে পল্টন মোড় ঘুরে ফের বায়তুল মোকাররমে এসে মিছিলটি শেষ হয়। মিছিল থেকে ট্রাম্পবিরোধী স্লোগান দেয় সংগঠনটির নেতা কর্মীরা। ইসলামি কানুন বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি মাওলানা আবু তাহের জিহাদী বলেন, ‘জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে মুসলমানদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ ঘটিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন। জেরুজালেম ফিলিস্তিনের রাজধানী। এটি সবসময় ফিলিস্তিনেরই রাজধানী থাকবে। শুধু মধ্যপ্রাচ্য নয়, বিশ্ব শান্তির জন্য এটি এখন সময়ের দাবি।’

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসও পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি হিসেবে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। দলের যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদের নেতৃত্বে বায়তুল মোকাররম মসজিদের উত্তর গেটে থেকে মিছিল বের হয়। বিক্ষোভ মিছিলের শেষে সমাবেশে মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ বলেন, ‘ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানীর স্বীকৃতি দিয়ে অবৈধ ইসরাইল ও ইহুদিদের দালালে পরিণত হয়েছেন। বিশ্ব মুসলিম নেতারা ও মুসলমানরা ট্রাম্পের এ স্বীকৃতির বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। সুতরাং ট্রাম্পকে এ স্বীকৃতি বাতিল করতে হবে । মুসলমানদের প্রথম কেবলার স্থান জেরুজালেমকে ফিলিস্তিনের রাজধানী ঘোষণা করতে হবে। ট্রাম্প এ ঘোষণা বাতিল না করলে মুসলিম বিশ্ব যেভাবে ঐক্যবদ্ধ হয়েছে., তাতে জেরুজালেম ইসরাইলের রাজধানী নয় ইসরাইলের কবরস্থানে পরিণত হবে।’

Comments

comments