পূর্ব জেরুসালেমকে ফিলিস্তিনি রাজধানীর স্বীকৃতি মুসলিম নেতাদের

মুসলিম দেশগুলোকে নিয়ে গঠিত ইসলামি সহযোগিতা সংস্থা (ওআইসি) অধিকৃত ফিলিস্তিনির রাষ্ট্রের রাজধানী হিসেবে পূর্ব জেরুসালেমকে স্বীকৃতি দিয়েছে। ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র জেরুসালেমকে স্বীকৃতি প্রদান করার প্রতিক্রিয়া হিসেবে মুসলিম দেশগুলো এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

বুধবার ইস্তাম্বুলে ওআইসি’র জরুরি সম্মেলনে এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সৌদি আরব এবং এর মিত্ররা সম্মেলনে নিম্ন পর্যায়ের প্রতিনিধি পাঠানোর ফলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে কঠোর কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে না বলে আশঙ্কা সৃষ্টি হয়েছিল। কিন্তু মুসলিম দেশগুলো তাদের মতপার্থক্য এড়িয়ে পূর্ব জেরুসালেমকে ফিলিস্তিনিদের রাজধানী ঘোষণার সাহসী সিদ্ধান্ত নেয়।

সম্মেলনের চূড়ান্ত ইস্তেহারে বলা হয়, ‌পূর্ব জেরুসালেম হলো ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের রাজধানী। সব দেশকে ফিলিস্তিন রাষ্ট্র এবং এর রাজধানী হিসেবে পূর্ব জেরুসালেমকে স্বীকৃতি প্রদান করার আহ্বান জানানো হচ্ছে।

ইস্তেহারে কড়া ভাষায় ট্রাম্পের একতরফা সিদ্ধান্তের সমালোচনা করা হয়। এতে বলা হয়, ট্রাম্পের সিদ্ধান্ত ফিলিস্তিনিদের ঐতিহাসিক, আইনগত, সহজাত এবং জাতীয় অধিকারের ওপর হামলা।
সূত্র : মিডলইস্ট আই

ইসরাইল একটি দখলদার ও সন্ত্রাসী রাষ্ট্র : এরদোগান
তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েপ এরদোগান ওআইসি সম্মেলন উদ্বোধনকালে বলেন, ইসরাইল একটি দখলদার ও সন্ত্রাসী রাষ্ট্র।

যুক্তরাষ্ট্র জেরুসালেমকে ইসরাইলের রাজধানী ঘোষণা করার পর বুধবার ইস্তাম্বুলে ওআইসি’র (অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশন) জরুরি সম্মেলন ডাকা হয়। খবর এএফপি’র।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট বলেন, ইসরাইল একটি দখলদার রাষ্ট্র। কেবল তাই নয় ইসরাইল একটি সন্ত্রাসী রাষ্ট্র।

জেরুসালেম ফিলিস্তিনের রাজধানী না হলে কোনো শান্তি কিংবা স্থিতিশীলতা নয় : আব্বাস

ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস বুধবার সতর্ক করে বলেছেন, জেরুসালেমকে ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি না দেয়া পর্যন্ত মধ্যপ্রাচ্যে ‘কোন ধরনের শান্তি ও স্থিতিশীলতা’ আসবে না। খবর এএফপি’র।

ইস্তাম্বুলে আয়োজিত অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশন (ওআইসি)’র এক জরুরি বৈঠকে আব্বাস বলেন, ‘জেরুসালেম আজীবনের জন্য ফিলিস্তিনের রাজধানী হবে। এ ছাড়া মধ্যপ্রাচ্যে স্থিতিশীলতা আসবে না। এর আর কোনো বিকল্প নেই।’

Comments

comments