‘আগে শিবির ধরব, তারপর ভাইভা’!

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) পরীক্ষা দিতে আসা আবদুল মুত্তালিব নামে এক শিবির নেতাকে পিটিয়ে পুলিশে দিয়েছেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা।

মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে ডায়না চত্বর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

তিনি ইবির জিয়াউর রহমান হল শাখা শিবিরের সাবেক সভাপতি বলে জানা গেছে।

জানা যায়, আবদুল মুত্তালিব বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তি বিভাগের ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী। তিনি বিভাগে টিউটোরিয়াল পরীক্ষা দিতে আসেন।

পরীক্ষা শেষে বিজ্ঞান অনুষদের সামনে থেকে ছাত্রলীগের ৫-৬ জন নেতাকর্মী তাকে ধাওয়া দেন।

এসময় ডায়না চত্বরে যোবায়ের, বিপুল, রিয়ন, শিমুল, শাফায়েতসহ ৮-১০ জন ছাত্রলীগ কর্মী তাকে বেধড়ক মারধর করেন।

পরে তাকে প্রক্টর অফিসে যাওয়ার পথে ছাত্রলীগের সভাপতি গ্রুপের কর্মীরা তাকে আবারও ধাওয়া করেন।

এসময় শিবির নেতা দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে তাকে আবার মারধর করেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

এসময় ছাত্রলীগ কর্মীদের ‘ধর ধর’ স্লোগানে মৌখিক ভাইভা দিতে আসা ভর্তিচ্ছুদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

এসময় ‘বি’ ইউনিটের সাক্ষাৎকার দিতে আসা ভর্তিচ্ছুদের আতঙ্কিত হয়ে ছুটোছুটি করতে দেখা যায়।

একপর্যায়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মী ‘ক্যাম্পাসে শিবির ঢুকছে। আগে শিবির ধরব, তারপর ভাইভা’ বলে ‘বি’ ইউনিটের সাক্ষাৎকার বন্ধ করে দেন।

পরে মানবিক ও সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অফিসের গেট লাগিয়ে দেন তারা।

এরপর ওই শিবির নেতাকে প্রক্টরিয়াল বডির মাধ্যমে পুলিশে সোপর্দ শেষে গেট খুলে দেয়া হলে পুনরায় সাক্ষাৎকার শুরু হয়।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় থানার ওসি রতন শেখ বলেন, ‘আবদুল মুত্তালিবের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে মামলা হয়েছে। আইনি প্রক্রিয়া শেষে আদালতে পাঠানো হবে।’

Comments

comments