‘বিচার বিভাগের স্বাধীনতা চাওয়ায় দেশ ছাড়তে হলো প্রধান বিচারপতিকে’

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘বিচার বিভাগের স্বাধীনতাকে প্রশাসনের কবল থেকে মুক্ত করা গেলো না। এ কারণে প্রধান বিচারপতিকে (সুরেন্দ্র কুমার সিনহা) দেশ ছাড়তে হলো।’ মঙ্গলবার (১২ ডিসেম্বর) সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে তিনি এসব কথা বলেন তিনি।

মির্জা ফখরুলের কথায়, ‘বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিয়ে আমরা প্রচুর আন্দোলন করেছি। এ নিয়ে আইন পাস হয়েছে। কিন্তু সেই বিচার বিভাগের স্বাধীনতা আবারও প্রশাসনের হাতে চলে গেলো। কোনোভাবেই এটাকে মুক্ত করা গেলো না। মুক্ত করতে গিয়ে প্রধান বিচারপতি পদ হারালেন ও দেশত্যাগে বাধ্য হলেন।’

গণতন্ত্র ও নির্বাচনের মধ্য দিয়ে নিজেদের সব সত্যকে ফিরিয়ে আনতে হবে বলে মনে করেন এই রাজনীতিবিদ। তার ভাষ্য, ‘এখন এই একটি পথই আছে। কারণ আমরা প্রতিবাদ করতে গেলেই মামলা দিয়ে দাবিয়ে রাখা হয়। এই যে আমরা নির্বাচন (রংপুর সিটি করপোরেশন) করছি, এর ফল কী হবে? এর ফল শূন্য।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেটে ২৫ জন রেজিস্টার্ড গ্রাজুয়েটস প্রতিনিধি নির্বাচনের জাতীয়তাবাদী পরিষদের প্যানেল পরিচিতি অনুষ্ঠানে কথাগুলো বলছিলেন মির্জা ফখরুল। রেজিস্টার্ড গ্রাজুয়েটস প্রতিনিধিদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গণতন্ত্র, মুক্তচিন্তা ও অধিকার রক্ষার আন্দোলন আসতে হবে। এই নির্বাচনকে সিনেট নির্বাচন হিসেবে না নিয়ে গণতন্ত্রের মুক্তির আন্দোলন হিসেবে নিতে হবে।’

মঙ্গলবারের অনুষ্ঠানে জাতীয়তাবাদী পরিষদের প্যানেল প্রার্থী ছাড়াও ছিলেন অন্যান্য নেতাকর্মী।

Comments

comments