ইসলামী আন্দোলনের যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস ঘেরাও শান্তিনগরেই আটকে দিল পুলিশ

জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানীর স্বীকৃতি দেওয়ার প্রতিবাদে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচি পুলিশের বাধায় পণ্ড হয়ে গেছে।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কর্মীরা সোমবার সকালে ঢাকার বায়তুল মোকাররম এলাকায় বিক্ষোভ সমাবেশ করে পরে যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস ঘেরাও করতে মিছিল নিয়ে বারিধারার উদ্দেশ্যে রওনা হন।

কিন্তু শান্তিনগরে পুলিশ তাদের আটকে দেয় বলে সংগঠনের যুগ্ম মহাসচিব এটিএম হেমায়েত উদ্দিন জানান।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত ৬ ডিসেম্বর জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিলে বাংলাদেশের বিভিন্ন ইসলামী দলগুলোর মত ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশও কর্মসূচি দেয়।

সে অনুযায়ী সোমবার সকাল ১০টা থেকে বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেইটে জড়ো হতে শুরু করেন সংগঠনটির নেতা-কর্মীরা। এ সময় ওই অংশের সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

পুলিশের মতিঝিল বিভাগের উপ কমিশনার সাইফুর রহমান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, সমাবেশ চলাকালে বায়তুল মোকাররমের উত্তর ফটকে যান চলাচল বন্ধ থাকলেও বিকল্প পথে যান চলাচলের ব্যবস্থা করা হয়।

ইসলামী আন্দোলনের আমির রেজাউল করিম সমাবেশে বলেন, “জেরুজালেম সবসময় ফিলিস্তিনের রাজধানী ছিল। এটা কখনোই ইসরায়েল পেতে পারে না। ট্রাম্প এটা অন্যায়ভাবে ঘোষণা করেছেন। এই সমাবেশ থেকে আমরা ধাপে ধাপে মার্কিন পণ্য বর্জন করার জন্য দেশবাসীকে আহ্বান জানাই।”

সমাবেশ শেষে বেলা পৌনে ১২টার দিকে বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেইট থেকে মার্কিন দূতাবাসের দিকে যাত্রা শুরু করে ইসলামী আন্দোলনের বিক্ষোভ মিছিল। কিন্তু পুলিশের বাধার কারণে শান্তিনগরেই তাদের কর্মসূচি শেষ করতে হয়।

শান্তিনগর এলাকায় দায়িত্বরত পুলিশ পরিদর্শক পারভেজ ইসলাম বলেন, “জনগণের দুর্ভোগের কথা বিবেচনা করে ওই মিছিল আর সামনে এগোতে দেওয়া হয়নি।”

Comments

comments