ভারতে খ্রিস্টানদের প্রার্থনা সভায় হামলা-ভাঙচুর, বিজেপি নেতা গ্রেফতার

তামিলনাড়ুর কোয়েম্বত্তূরে খ্রিস্টানদের একটি প্রার্থনাগৃহে ঢুকে তা-ব চালানোর অভিযোগে এক বিজেপি নেতাকে গ্রেফতার করল পুলিশ। ধৃত ওই নেতার নাম নন্দকুমার। তিনি স্থানীয় বিজেপি নেতা।

পুলিশ জানিয়েছে, শনিবার প্রার্থনাগৃহে একটি সভার আয়োজন করা হয়েছিল। সভা চলাকালীন বেশ কয়েক জন সমর্থককে নিয়ে সেখানে আসেন অভিযুক্ত ওই বিজেপি নেতা। সভা বন্ধ করার জন্য হুমকি দেন তিনি। তার পরই হঠাৎ মারমুখী হয়ে ওঠেন নন্দকুমার ও তাঁর সাঙ্গপাঙ্গরা। ব্যাপক ভাঙচুর চালানোর পাশাপাশি বেশ কয়েক জনকে মারধর করা হয় বলেও অভিযোগ।

মারধর ও হামলা চালানোর অভিযোগে নন্দকুমার-সহ কয়েক জনকে গ্রেফতার করেলও পুলিশ জানিয়েছে, এই প্রার্থনাগৃহ বন্ধ করার জন্য স্থানীয় প্রশাসন আগেই নির্দেশ দিয়েছিল। কিন্তু সেই নির্দেশকে ‘অমান্য’ করে সেখানে সভার আয়োজন করা হয় বলে পাল্টা অভিযোগ ওঠে।

কোয়েম্বত্তূরে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে এ রকম বেশ কয়েকটি প্রার্থনাগৃহ। এনডিটিভি-কে কোয়েম্বত্তূরের এক পুলিশ আধিকারিক জানান, বহু দিন ধরেই এ ধরনের সভাগুলোর বিরুদ্ধে ‘অসুবিধা’র অভিযোগ তুলছিল বিজেপি এবং কয়েকটি হিন্দু সংগঠন। সেই অভিযোগ ওঠার পর জেলা প্রশাসন এ রকম ৩০টি প্রার্থনাগৃহ বন্ধের নির্দেশও দিয়েছিল। বিষয়টি আদালতে গেলে এ রকম পাঁচটি মামলায় স্থগিতাদেশ দেয় মাদ্রাজ হাইকোর্ট। আদালতের নির্দেশের পরই এই ধরনের প্রার্থনাগৃহের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করা হয় বলে ওই পুলিশ আধিকারিক জানান। তবে সেই আশ্বাসের পরেও ওই দিনের ঘটনায় বেশ অস্বস্তিতে পুলিশ প্রশাসন।

-আনন্দবাজার

Comments

comments