যে নারীর হাত ধরে ইসলামের ছায়ায় সহস্রাধিক বেলজিয়ান

ইসলামের ওপর গবেষণা করতে গিয়ে অল্প বয়সেই মহান এই ধর্মের প্রতি আকৃ হয়েছিলেন বেলজিয়ামের তরুণী ভেরোনিক কুলস (২৫)। এরপর মুসলিম বন্ধুদের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে ইসলামের ছায়াতলে আশ্রয় গ্রহণ করেন ভেরোনিক।

নিজে ইসলাম গ্রহণ করেই দায়িত্ব শেষ করেননি ভেরোনিক। ইসলামের সেবায় আত্মনিয়োগ করেন তিনি। নিজের বাড়িটিকে ইসলামিক সেন্টারে পরিণত করেন তিনি, যাতে লোকজন ইসলাম সম্পর্কে জানান সুযোগ পায়। ভেরোনিকের দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে গত আট বছরে ইসলাম গ্রহণ করেছেন ১ হাজারের বেশি লোক।

তিনি বলেন, ইসলাম সম্পর্কে তার যেসব কুসংস্কার ছিল তিনি তার ঊর্ধ্বে উঠতে পেরেছেন। তার পরিবার ও নিকট বন্ধুদের সবাই ইসলাম গ্রহণ করেছেন। পবিত্র রমজানে মুসলমানদের জন্য ইফতার তৈরি করতে করতেই তিনি বলেন, কুসংস্কারের কারণে অনেকে প্রকৃত ইসলাম সম্পর্কে জানতে পারেন না। মুসলমান হিসেবে সমাজে আরো ভালোভাবে আমাদের উপস্থাপন করার প্রয়োজন রয়েছে।

ভেরোনিকের ইসলামিক সেন্টারের সদস্য সংখ্যা ১ হাজার। এদের বেশিরভাগই বেলজিয়ামের নারী। তবে বেলজিয়ামের ৫০ হাজার মুসলমানের সবার জন্যই ভেরোনিকের এই ইসলামিক সেন্টার উন্মুক্ত।

Comments

comments