বাইতুল মোকাদ্দাসকে মুক্ত করতে প্রতিরোধ চলবে: ইরানের সেনাপ্রধান

ইরানের সেনাপ্রধান মেজর জেনারেল মোহাম্মাদ বাকেরি আমেরিকাকে সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, বাইতুল মোকাদ্দাস শহর ইসলাম ও মুসলমানদের সম্পদ। এই শহর ইহুদিবাদীদের কবল থেকে মুক্ত করার লক্ষ্যে প্রতিরোধ সংগ্রাম অব্যাহত থাকবে।

তিনি বৃহস্পতিবার এক বার্তায় এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। জেনারেল বাকেরি বলেন, মুসলিম উম্মাহর অবিচ্ছেদ্য অংশ বাইতুল মোকাদ্দাসের ওপর অন্য কোনো জাতিকে নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার অধিকার বিশ্বের মুসলমানরা দেবে না।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ফিলিস্তিনের বাইতুল মোকাদ্দাস (জেরুজালেম) শহরকে দখলদার ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে যে বক্তব্য দিয়েছেন তার প্রতিক্রিয়ায় ইরানের সেনাপ্রধান এসব কথা বললেন।

জেনারেল বাকেরি বলেন, মধ্যপ্রাচ্যে একের পর এক মার্কিন নীতি ব্যর্থ হওয়ার কারণে ট্রাম্প প্রশাসন প্রচণ্ড হতাশ হয়ে এই বেপরোয়া পদক্ষেপ নিয়েছে। তিনি মুসলমানদের প্রথম ক্বেবলা আল-আকসা মসজিদ ও বাইতুল মোকাদ্দাস শহরের বিরুদ্ধে সাম্রাজ্যবাদী আমেরিকা ও ইহুদিবাদী ইসরাইলের সব ষড়যন্ত্র নস্যাৎ করে দেয়ার জন্য বিশ্ব মুসলিমের প্রতি আহ্বান জানান।

ট্রাম্পের বুধবারের ঘোষণা পর বৃহস্পতিবার বাইতুল মোকাদ্দাস শহরে ইহুদিবাদী সেনাদের সঙ্গে ফিলিস্তিনিদের ব্যপক সংঘর্ষ হয়। তিনি এই স্পর্শকাতর সময়ে মুসলিম উম্মাহকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান।

ইরানের সেনাপ্রধান বলেন, ফিলিস্তিনের নির্যাতিত জনগণের ন্যায়সঙ্গত অধিকারের প্রতি সমর্থন জানানো ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের মৌলিক নীতিমালার অংশ। তেহরান মনে করে, ট্রাম্পের এ ঘোষণার ফলে মধ্যপ্রাচ্যে নতুন করে নিরাপত্তাহীনতা ও অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি হবে এবং সেরকমটি হলে তার পুরো দায় আমেরিকা ও ইহুদিবাদী ইসরাইলকেই নিতে হবে।

বায়তুল মুকাদ্দাসের ইসলামি পরিচিতি মুছে ফেলা যাবে না: ইরান
এদিকে, ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ বলেছেন, জেরুজালেম খ্যাত বায়তুল মুকাদ্দাস শহরের আরব ও ইসলামি পরিচিতি কেউ মুছে ফেলতে পারবে না। বায়তুল মুকাদ্দাসকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বুধবার যে ঘোষণা দিয়েছেন তার প্রতিক্রিয়ায় একথা বলেছেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাওয়াদ জারিফ।

তিনি তার অফিসিয়াল টুইটার পেইজে আরবি ভাষায় লিখেছেন, শত্রুরা চাক বা না চাক বায়তুল মুকাদ্দাস বা আল-কুদস শহর চিরদিন আরব ও ইসলামি পরিচিতি নিয়ে টিকে থাকবে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বুধবার সারা বিশ্বের বিরোধিতা ও প্রতিবাদ উপেক্ষা করে এবং আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে ফিলিস্তিনের জেরুজালেম বা বায়তুল মুকাদ্দাস শহরকে ইহুদিবাদী ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দিয়েছেন।

বুধবার হোয়াইট হাউজ থেকে দেয়া ঘোষণায় ডোনাল্ড ট্রাম্প আরো জানিয়েছেন, তেল আবিব থেকে মার্কিন দূতাবাস বায়তুল মুকাদ্দাস শহরে সরিয়ে নেয়া হবে।

ট্রাম্প তার ঘোষণায় বলেন, আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে, বায়তুল মুকাদ্দাসকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দেয়ার সময় হয়েছে। আগের সব প্রেসিডেন্ট নির্বাচনী প্রচারণার সময় এ বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দিতেন কিন্তু কেউ বাস্তবায়ন করেন নি। আমি বাস্তবায়ন করলাম।

১৯৯৫ সালের ২৩ অক্টোবর ইসরাইলস্থ মার্কিন দূতাবাস তেল আবিব থেকে বায়তুল মুকাদ্দাসে নেয়ার বিল পাস করে মার্কিন কংগ্রেস। কিন্তু বিশ্বজনমতের প্রবল আপত্তির কথা বিবেচনা করে এতদিন কোনো মার্কিন প্রেসিডেন্ট ওই প্রস্তাব বাস্তবায়নের সাহস করেন নি। ইহুদিবাদী ইসরাইল ১৯৬৭ সালের আরব-ইসরাইল যুদ্ধে জেরুজালেম বা বায়তুল মুকাদ্দাস শহর দখল করে নেয়।

Comments

comments