গ্র্যামিতে আটটি মনোনয়ন জে-জির

র‍্যাপার জে-জি এ পর্যন্ত জিতেছেন ২১টি গ্র্যামি। এবার গ্র্যামির ৬০তম আসরে ৪৭ বছর বয়সী এই মার্কিন তারকা আটটি বিভাগে মনোনয়ন পেয়েছেন। বিভাগগুলো হলো অ্যালবাম অব দ্য ইয়ার, সং অব দ্য ইয়ার, রেকর্ড অব দ্য ইয়ার, বেস্ট র‍্যাপ অ্যালবাম, বেস্ট র‍্যাপ সং, বেস্ট র‍্যাপ পারফরমেন্স, বেস্ট মিউজিক ভিডিও ও বেস্ট সাং পারফরমেন্স। তাঁর ‘৪.৪৪’ (ফোর পয়েন্ট ফোর ফোর) অ্যালবাম এনে দিয়েছে এই সম্মান।

এরপর সাতটি বিভাগে মনোনয়ন পেয়েছেন ৩০ বছর বয়সী মার্কিন র‍্যাপার কেনড্রিক ল্যামার। তাঁর ‘ড্যাম’ অ্যালবামের জন্য রেকর্ড অব দ্য ইয়ার, অ্যালবাম অব দ্য ইয়ার, বেস্ট র‍্যাপ অ্যালবাম, বেস্ট র‍্যাপ সং, বেস্ট মিউজিক ভিডিও, বেস্ট র‍্যাপ পারফরমেন্স ও বেস্ট সাং পারফরমেন্স বিভাগে মনোনয়ন পেয়েছেন তিনি।

এ ছাড়া ব্রুনো মার্স (টোয়েন্টি ফোরকে ম্যাজিক) পেয়েছেন ছয়টি বিভাগে আর চাইল্ডিশ গ্যাম্বিনো (অ্যাওয়েকেন, মাই লাভ!), খালিদ, নো আই.ডি. এবং সিজা প্রত্যেকে পাঁচটি বিভাগে মনোনয়ন পেয়েছেন। এবার মনোনয়নে একটি দিক অনেকেরই চোখে পড়েছে, তা হলো, এবার মনোনয়নে পিছিয়ে আছেন নারী শিল্পীরা। তবে মেয়েদের মধ্যে রিদম অ্যান্ড ব্লুজ গায়িকা সিজা পেয়েছেন সেরা নতুন শিল্পীসহ পাঁচটি মনোনয়ন।

২০১৭ সালের আলোচিত গান ‘দেসপাসিতো’ তিনটি বিভাগে মনোনয়ন পেয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে সং অব দ্য ইয়ার ও রেকর্ড অব দ্য ইয়ার। গানটির সামনে রয়েছে ইতিহাস গড়ার সম্ভাবনা। গ্র্যামির আসরে অন্য ভাষার গান হিসেবে পুরস্কার জেতার হাতছানি রয়েছে এই গানে। ব্রিটিশ তারকা এড শিরান ‘ডিভাইড’ পেয়েছেন পপ বিভাগের দুটি মনোনয়ন। একই বিভাগে মনোনীত হয়েছেন লেডি গাগা ও কেশা।

জানা গেছে, দ্য রেকর্ডিং একাডেমির ১৩ সহস্রাধিক সদস্যের ভোটে নির্বাচিত হবেন বিজয়ীরা। আগামী বছর ২৮ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক সিটির ম্যাডিসন স্কয়ার গার্ডেনে জমকালো অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে। ১৪ বছর পর লস অ্যাঞ্জেলেসের বাইরে গ্র্যামি অনুষ্ঠান আয়োজন করা হচ্ছে। গ্র্যামি ডটকম

Comments

comments