পাকিস্তানে অস্ত্রধারীদের হামলায় ৯ শিক্ষার্থী নিহত

পাকিস্তানের পেশাওয়ারে কৃষি প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউটের এক আবাসিক ভবনে অস্ত্রধারীদের হামলার ঘটনায় অন্তত ৯ শিক্ষার্থী নিহত হয়েছে। আহত হয়েছেন আরো অন্তত ৩৭ জন। আহতদের অনেকের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

শুক্রবার সকালে পেশোয়ার কৃষি প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউটে কমপক্ষে ৪ জন অস্ত্রধারী ঢুকে পড়ে।

পুলিশ জানিয়েছে, হামলাকারীরা রিকশায় করে ঘটনাস্থলে আসে।

স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো জানিয়েছে, এ ঘটনার পরপরই সেখানে পুলিশি অভিযান শুরু হয়।

স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম আরো জানায়, শুক্রবার সকালে বোরকা পরিহিত সন্দেহভাজন হামলাকারীরা গুলি ছুড়তে ছুড়তে হোস্টেল ভবনে প্রবেশ করে। খবর পেয়ে পুলিশ, সেনাবাহিনী ও ফ্রন্টিয়ার কর্পসের সদস্যরা ঘটনাস্থলটি ঘিরে ফেলে। শুরু হয় গোলাগুলি। জিম্মিদের উদ্ধারে অভিযান চালায় নিরাপত্তা বাহিনী।

এছাড়া সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টার ওই এলাকাটির ওপর নজরদারি করছে।

সন্ত্রাসী গোষ্ঠী তেহরিকে তালেবান পাকিস্তান বা টিটিপি এ হামলার দায় স্বীকার করেছে। ঈদ-ই-মিলাদুন্নবীর জন্য প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ ছিল বলে জানা গেছে।

ভবনটিতে অন্তত ৪০ জন শিক্ষার্থী সেখানে ছিলেন বলে স্থানীয়দের সূত্রে জানা গেছে।

পেশোয়ারের হায়াতাবাদ হাসপাতাল ও খায়বার টিচিং হাসাপাতালে আহত ছাত্রদের ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া, পাকিস্তানের আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর বা আইএসপিআর জানিয়েছে, গোলাগুলির ঘটনায় দুই সেনা আহত হয়েছে এবং তাদেরকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আইএসপিআর বলছে, কৃষি প্রশিক্ষণ হোস্টেলে হামলার ঘটনায় সেনাবাহিনী সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়েছে এবং এতে তিন সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে। তবে পুলিশ বলছে, হামলায় জড়িত চার সন্ত্রাসীই মারা গেছে।

পাকিস্তানে অবস্থান ধর্মঘট প্রত্যাহার

বিক্ষোভের মুখে পাকিস্তানের আইনমন্ত্রী জাহিদ হামিদ পদত্যাগ করার পর অবস্থান ধর্মঘট প্রত্যাহার করেছেন আন্দোলনকারীরা। ধর্ম সংক্রান্ত একটি বিলকে কেন্দ্র করে দীর্ঘ অবস্থান ধর্মঘট এবং বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

পদত্যাগী মন্ত্রীর উদ্ধৃতি দিয়ে পিটিভি জানায়, ‘দেশে শান্তি ফিরিয়ে আনতে আমি পদত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ তবে প্রধানমন্ত্রী শহিদ খাকান আব্বাসী আইনমন্ত্রীর পদত্যাগ পত্র গ্রহণ করেছেন কিনা তা জানা যায়নি।

এদিকে তার পদত্যাগের পর তিন সপ্তাহ ধরে চলা এই অবস্থান ধর্মঘটের অবসান টানতে সরকার ও বিক্ষোভকারীরা একটি চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছে।

জিও টিভি জানিয়েছে, আন্দোলনকারীদের সঙ্গে সরকারের সমঝোতা হওয়ার বিক্ষোভ প্রত্যাহার করা হয়েছে।

ওই ধর্মঘটের কারণে পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদ ও এর পাশের নগরী রাওয়ালপিন্ডিতে বড় ধরনের যানজট সৃষ্টি হয়। পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে ৬ জন নিহত ও দুই শতাধিক আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

পাকিস্তান সরকার গত মাসে একটি ধর্ম বিষয়ক বিল পাস করে। এর পরপরই ধর্মীয় সংগঠনগুলো আইনটির তীব্র বিরোধীতা করে আন্দোলন শুরু করে। সরকার পরে আইনটি প্রত্যাহার করে নিলেও আন্দোলনকারীরা আইনমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি জানিয়ে আসছিল

উল্লেখ্য, বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরে আইনমন্ত্রী জাহিদ হামিদের বিরুদ্ধে ধর্ম অবমাননার (ব্লাসফেমি) অভিযোগে বিক্ষোভ করে আসছে লস্কর-ই-লাব্বাইকের সদস্যরা। লাহোর, করাচিসহ বেশ কয়েকটি শহরে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছিল। শনি ও রবিবার বিক্ষোভ চূড়ান্ত রূপ নেয়।

Comments

comments