উত্তরা ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস: মিলেছে শতভাগ

বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের ব্যাপক আলোচনার মধ্যে এবার উত্তরা ব্যাংকে নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস হয়ছে। উত্তরা ব্যাংকে প্রবেশনারি অফিসার পদে নিয়োগ পরীক্ষা হয়েছে বিকালে। যমুনা টিভির হাতে ফাঁস হওয়ার প্রশ্নের উত্তরের নমুনা আসে পরীক্ষার শুরুর ঘন্টা দেড়েক আগে। পরে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক কমিটিও যমুনার টিভির হাতে আসা উত্তরের সঙ্গে এক সেট প্রশ্নের মিল পাওয়ার কথা স্বীকার করেছেন। তারা বলেছেন, তদন্ত করে প্রয়োজনে পরীক্ষা বাতিল করা হবে। এদিকে চাকুরি প্রার্থীরা পরীক্ষা বাতিলের জোর দাবি জানিয়েছেন।

দুপুর দু’টার আগেই বেশ কয়েকটি সাদা কাগজে হাতে লেখা উত্তরপত্র হাতে আসে যমুনা টিভির কাছে। বাংলা, ইংরেজি, গণিত, সাধারণ জ্ঞান- সবগুলো বিষয়েই উত্তরগুলো হুবহু মিলে গেছে প্রশ্নের সঙ্গে।

২ নম্বর সেটের বাংলা অংশের প্রথম প্রশ্ন ‘অডিট’ শব্দের বাংলা পরিভাষা কি? উত্তর লেখা- নিরীক্ষা। ইংরেজি অংশের প্রথম প্রশ্ন সঠিক বানান নির্ণয়- উত্তর-ম্যানেজেবল। এভাবে সবগুলো প্রশ্নের উত্তর হাতে লেখা। শুধু একটি বা দশটি নয় পুরো একশোটি প্রশ্নের উত্তরই রয়েছে সেখানে। বিকাল তিনটা থেকে চারটা পর্যন্ত পরীক্ষা দিয়ে বেরিয়া আসা চাকরিপ্রার্থীরাও একই কথা বলেছেন। হুবহু মিলে গেছে ফাঁস হওয়ার প্রশ্নের হাতে লেখা উত্তর। প্রশ্ন ফাঁসের খবর শুনো তীব্র প্রতিবাদ জানান চাকুরিপ্রার্থীরা।

গত ২২ আগষ্ট প্রবেশনারি অফিসার ও সহকারি অফিসার পদে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে উত্তরা ব্যাংক। এতে প্রায় ৫২ হাজার পরীক্ষার্থী আবেদন করেন।

এ বিষয়ে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক কমিটির মুখোমুখি হলে তারা যাচাই করে জানান, এক সেট প্রশ্নের উত্তরের সঙ্গে হুবহু মিলে গেছে এই উত্তরগুলোর। এ ঘটনায় তদন্ত করে ব্যবস্থা কথাও জানিয়েছে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ।

এদিকে এ পরীক্ষা নিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনৈতিক গবেষণা ব্যুরো। অর্থনীতি গবেষণা ব্যুরোর পরিচালক শফিক উজ জামান বলেন, কিছু কিছু মিল পাওয়া গেছে এ ব্যাপারে আমরা তদন্ত কমিটি গঠন করবো, তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে; প্রয়োজন হলে পরীক্ষা নেয়া হবে; তবে যারা আজ অনুপস্থিত ছিলেন তারা অংশগ্রহণ করতে পারবে না।

পূর্ব নির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী আজ শুক্রবার প্রিলিমিনারি (প্রাথমিক বাছাই) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রাজধানীর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এই পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে।

 

Comments

comments