দুই ট্রাক ময়লা নিয়ে আজিমপুরে আ’লীগের দুই গ্রুপে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, ভাঙচুর-আগুন

দুই ট্রাক ময়লার জের ধরে রাজধানীর আজিমপুরে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। প্রায় আধা ঘণ্টাব্যাপী ওই সংঘর্ষে দু’গ্রুপের বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। এ সময় বেশ কয়েকটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে।

আজ বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) আজিমপুর পার্ল হারবার কমিউনিটি সেন্টারের সামনে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ঢাকা মহানগর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকনের অনুসারীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা জানান, আজিমপুর পার্ল হারবার কমিউনিটি সেন্টারে ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ পূর্ব নির্ধারিত প্রস্তুতি সভা করছিলেন। বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণকে ইউনেসকো স্বীকৃতি দেওয়ায় আগামী ১৮ নভেম্বর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের সমাবেশ অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি সভা ছিল এটি। তবে রাতে কমিউনিটি সেন্টারের ঢোকার মুখে সিটি করপোরেশনের গাড়িতে করে ময়লা এনে ফেলা হয় বলে অভিযোগ করেছেন শাহে আলম মুরাদ।

এদিকে একই সময়ে ৩৮ নম্বর ওয়ার্ডের কমিশনার আবু আহমেদকে ‘লাঞ্ছিত’ করার প্রতিবাদে কমিউনিটি সেন্টারের সামনে বিক্ষোভ করে আরেকটি পক্ষ। তারা ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ খোকনের অনুসারী বলে জানা গেছে।

এ নিয়ে সকাল থেকেই দু’গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। পরে বেলা সকাড়ে ১১টার দিকে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে তারা। এ ব্যাপারে জানতে মেয়র সাঈদ খোকনের সঙ্গে কথা বলতে কয়েক দফা ফোন করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি।

লালবাগ থানার উপপরিদর্শক মাসুদ শেখ বলেন, একই সময়ে কর্মসূচি থাকায় সকাল থেকে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশের লালবাগ জোনের উপকমিশনারসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে রয়েছেন।

Comments

comments