রাজনীতিতে সক্রিয় বলেই মামলা : খালেদা জিয়া

আদালতে বেগম খালেদা জিয়া (ফাইল ফটো)

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া আদালতকে বলেছেন, আমার বিরুদ্ধে দায়ের করা কোন মামলারই আইনগত ভিত্তি নেই। আমি রাজনীতিতে সক্রিয় বলেই আমার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) বকশী বাজারের আলীয়া মাদ্রাসায় স্থাপিত বিশেষ আদালতে জিয়া অরফানেজ মামলার অসমাপ্ত জবানবন্দি দেয়ার সময় তিনি এসব কথা বলেন। সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী ৫ম দিনের মতো তাঁর জবানবন্দি দেয়ার জন্য আদালতে যান। আদালতের কাঠগড়ায় দাঁড়ালে বিএনপি চেয়ারপারসনকে উদ্দেশ্য করে বিশেষ আদালতের বিচারক আখতারুজ্জামান বলেন, ‘ম্যাম শুরু করেন’। এরপর খালেদা জিয়া বেলা ১১টা ৫০ মিনিটে তার বক্তব্য শুরু করেন।

আদালতে দেয়া জবানবন্দিতে খালেদা জিয়া বলেন, আমি এ মামলার বিবরণ থেকে জেনেছি এবং কুয়েত দূতাবাসের চিঠিতে জানানো হয়েছে যে, শহীদ জিয়াউর রহমানের নামে এতিমখানা প্রতিষ্ঠার জন্য অনুদান দিয়েছিলো। এতে আমার কোন সম্পৃক্ততা ছিলো না। আমি আরো জেনেছি যে, কুয়েতের দেয়া অনুদানের অর্থ দুই ভাগ করে দু`টি ট্রাস্টকে দেয়া হয়। এতে আইনের কোন লঙ্ঘন হয়নি এবং ব্যক্তিগতভাবে আমি কিংবা অন্য কারো লাভবান হওয়ার মতো কোন ঘটনা ঘটেনি। তাছাড়া, ট্রাস্ট দু`টির কোন পদে আমি কখনো ছিলাম না বা এখনো নেই। প্রধানমন্ত্রী হিসেবেও আমার কোন ধরণের সম্পৃক্ততা ছিলোনা।

তিনি আরো বলেন, মামলার স্বাক্ষ্য প্রমাণ থেকে আরো জানতে পেরেছি যে, বগুড়ায় এতিমখানা স্থাপনের লক্ষ্যে সে জমি ক্রয় করে। এই জমি ক্রয় সম্পর্কেও কোন অভিযোগ নেই।

এই ট্রাস্টের বাকী টাকা ব্যাংকে গচ্ছিত রয়েছে এবং তা সুদাসলে অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে বলেও আদালতে বলেন তিনি।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট একটি বেসরকারি ট্রাস্ট। এটি আইন সম্মতভাবে রেজিষ্ট্রিকৃত বলেও তাঁর দেয়া জবানবন্দিতে উল্লেখ করেন বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে রাজধানীর বকশী বাজার আলীয়া মাদ্রাসায় স্থাপিত বিশেষ আদালতের উদ্দেশে গুলশানের বাসা থেকে রওয়ানা হন তিনি। বেলা পৌঁছান ১১টা ৪৫ মিনিটে আদালতে এসে পৌঁছান তিনি।

Comments

comments