ছাত্রলীগের উচ্ছৃঙ্খলায় বিব্রত আওয়ামী লীগ

বেপরোয়া হয়ে পড়েছে ছাত্রলীগ। টানা দ্বিতীয় মেয়াদে আওয়ামী লীগ ক্ষমতাসীন হওয়ার পর ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে ‘উচ্ছৃঙ্খল’ ও ‘ডোন্ট কেয়ার’ মনোভাব চরম আকার ধারণ করেছে। খুন-হত্যা ধর্ষণের অভিযোগ এখন সরকারি দলের এই ছাত্রসংগঠনের সাথে লেগে আছে।

সংগঠনটির নেতাকর্মীদের একটা বড় ও প্রভাবশালী অংশ সন্ত্রাস, টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজি, ভর্তিবাণিজ্য, প্রশ্নপত্র ফাঁসসহ নানা কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে থাকায় প্রতিনিয়ত আলোচনা-সমালোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে থাকে ছাত্রলীগ। এই সংগঠনের অভ্যন্তরীণ কোন্দলেও শিক্ষার পরিবেশ বিঘিœত হচ্ছে। অনেক নেতাকর্মীকে বহিষ্কার করেও কোনোভাবেই তাদের নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। আওয়ামী লীগের হাইকমান্ড থেকে একাধিকবার সতর্ক করেও কোনো কাজ হচ্ছে না। ভ্রাতৃপ্রতীম এ সংগঠনটির নেতাকর্মীদের নেতিবাচক কর্মকাণ্ডে আওয়ামী লীগও বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছে। আগামী নির্বাচন সামনে রেখে ছাত্রলীগের লাগাম টেনে ধরা জরুরি বলে মনে করছে আওয়ামী লীগ।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর ও সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, গত ১০ আগস্ট বরগুনার পাথরঘাটায় পুলিশ এক তরুণীর লাশ উদ্ধার করলে ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়। পুলিশের দাবি, ওই তরুণীকে গণধর্ষণের পর হত্যা করে হাত-পা বেঁধে ফেলে দেয়া হয়। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে গত ৯ নভেম্বর দু’জন এবং পরে গত রোববার দু’জনসহ চার ছাত্রলীগ নেতাকে গ্রেফতার করে ডিবি পুলিশ। তারা হলোÑ পাথরঘাটা ডিগ্রি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রুহি আনান দানিয়াল, সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহিদুল ইসলাম রায়হান এবং উপজেলা ছাত্রলীগের সহসম্পাদক মো: মাহমুদ। তাদের মধ্যে দানিয়াল ও সাদ্দামকে দুই দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়েছে। গ্রেফতারের পরপরই জেলা কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে ওই চার নেতাকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

গত ৮ নভেম্বর বুধবার রাতে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে রাজবাড়ী জেলার রামকান্তপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সুমন মিয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গত ১ নভেম্বর বরিশালের আগৈলঝাড়ায় জেএসসি পরীক্ষার্থী এক ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করা নিয়ে ছাত্রলীগ কর্মী আসাদুজ্জামানের সাথে অপর ছাত্রলীগ কর্মী সাকিল খানের বাগি¦তণ্ডা ও হাতাহাতি হয়।

গত ৩০ অক্টোবর নওগাঁ সরকারি কলেজ বাংলা বিভাগের এক অনুষ্ঠানে বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. বেল্লাল হোসেনকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে চারজনকে আটক করে পুলিশ। একই দিনে ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ পৌরসভার ভেলাতৈড় মহল্লায় সরকারি গাছ চুরির অভিযোগে ছাত্রলীগের দুই নেতাসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়। তাদের মধ্যে দু’জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গত ২৪ অক্টোবর মঙ্গলবার মিরপুর সরকারি বাঙলা কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মজিবুর রহমান অনিককে বহিষ্কার করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

অভিযোগ রয়েছে, অনিকের সাথে ইডেন মহিলা কলেজের এক ছাত্রীর অবৈধ সম্পর্কের জের ধরে বাঙলা কলেজ ছাত্রলীগের সহসভাপতি শুভ্রা মাহমুদ জ্যোতিকে মারধর ও লাঞ্ছিত করেন তিনি। এর আগেও অনিক ছাত্রলীগের কাফরুল থানার নেত্রী এবং মিরপুর বাঙলা কলেজ রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ অনার্সের এক ছাত্রীকে আত্মহত্যার প্ররোচনা মামলারও এজহারভুক্ত ২নং আসামি। সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি রিয়াদ হোসেনের বিরুদ্ধে স্কুল কমিটির এক নেত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে। এ ঘটনায় ওই নেত্রীর মামা বাদি হয়ে গত ২৪ অক্টোবর রিয়াদ হোসেনসহ তার পাঁচ সহযোগীর বিরুদ্ধে আদালতে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

স্বামী পরিত্যক্তা এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে গত ১৩ সেপ্টেম্বর টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলার আটিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি সেলিম মিয়া ওরফে শেখ সোয়েবকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। গত ২৮ অক্টোবর নরসিংদীর মনোহরদী বড়চাপা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের দ্বিবার্ষিক সম্মেলনের সময় পদ ভাগাভাগি এবং আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে পুলিশসহ ছাত্রলীগের দুই কর্মী আহত হন।

একই দিনে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনের এক দোকানে চাঁদা দাবির ঘটনায় দুই পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায় রাতেই তিন নেতাকর্মীকে বহিষ্কার করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক সাধারণ সম্পাদক রায়হান চৌধুরীর বিরুদ্ধে হত্যা মামলার পর সম্প্রতি তার বিরুদ্ধে পাঁচ লাখ টাকার চেক জালিয়াতির মামলা হয়েছে। গত ১৬ অক্টোবর সিলেটে ছাত্রলীগ কর্মী ওমর আহমদ মিয়াদ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় রায়হান চৌধুরীসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা হয়।

স্থানীয় ছাত্রলীগের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জের ধরে মিয়াদ নিহত হলে ঘটনাটি ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীায় জালিয়াতির অভিযোগে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহসম্পাদক মহিউদ্দিন রানা ২০ অক্টোবর আটকের পরই তাকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীায় জালিয়াত চক্রের সদস্য সন্দেহে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির যুগ্ম সম্পাদক ইসতিয়াক আহমেদ সৌরভকে আটক করে পুলিশ।

এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় থেকেও তাকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়। আধিপত্য বিস্তার নিয়ে চট্টগ্রাম সরকারি কলেজে গত ১৫ অক্টোবর থেকে দুই দিনব্যাপী থেমে থেমে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ হয়। এতে অন্তত ২০ জন আহত হন।

গত ৬ সেপ্টেম্বর সাতীরার আশাশুনি উপজেলার কুলা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বুধবার রাতে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। বৃহস্পতিবার ওই গ্রামে দুর্গাপূজা উপলে নির্মাণাধীন প্রতিমাগুলো ভাঙা অবস্থায় পাওয়া যায়। মগবাজার-মৌচাক ফাইওভার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ ছাত্রলীগের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর যশোরের চৌগাছা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শামীম হাওলাদারকে গ্রেফতার করে পুলিশ। শামীম একাধিক মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামি ছিলেন। একই দিনে চট্টগ্রাম নগরীর কোতোয়ালি থানার নন্দন কাননের ১ নম্বর গলিতে এক পূজামণ্ডপে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে পূজা দিতে আসা নারীসহ দু’জন গুলিবিদ্ধ হন। রাজধানীর শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিলাস পালের বিরুদ্ধে ধর্ম নিয়ে কটূক্তি করার অভিযোগে গত ২ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তাকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয়।

শ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কাছে তাকে বহিষ্কারের সুপারিশ করে। খ্রিষ্টান পাদ্রিকে অপহরণের পর তিন লাখ টাকা মুক্তিপণের দাবির ঘটনায় গত ৩ অক্টোবর টঙ্গী সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শামস কবির ওরফে সৌরভকে আটক করে পুলিশ। গত ৬ অক্টোবর ছাত্রলীগের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জের ধরে প্রতিপক্ষের হাতে খুন হন চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সহসাধারণ সম্পাদক সুদীপ্ত বিশ্বাস। এ ঘটনাও বেশ চাঞ্চল্য সৃষ্টি করে।

এ ছাড়াও গত ৯ মাসে অভ্যন্তরীণ কোন্দলে ছাত্রলীগের পাঁচজন নেতাকর্মী নিহত হয়েছেন। এ সময় ছোট ও বড় মিলে শতাধিক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। গত ২২ ফেব্রুয়ারি টেন্ডার নিয়ে চট্টগ্রাম নগর ভবনে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে গোলাগুলি ও সংঘর্ষে সাতকানিয়া উপজেলার এক ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াসির আরাফাত নিহত হন।

৯ জুলাই বগুড়ার নন্দীগ্রামে ছাত্রলীগ কর্মী রিপনের গুলিতে এক যুবক নিহত হন। বছরের শুরুতে ২১ জানুয়ারি ঢাকা কলেজের আশপাশের বিভিন্ন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের চাঁদার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ছাত্রলীগের দুই পরে সংঘর্ষ হয়। এ সময় কলেজ ক্যাম্পাসে থাকা কয়েকটি মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেয়া হয়। ওই ঘটনায় কলেজ শাখা আহ্বায়ক নূর আলম ভূঁইয়াসহ ১৯ জনকে বহিষ্কার করে ছাত্রলীগ। ২৪ জানুয়ারি চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার নিজামপুর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে ছাত্রলীগ দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ওয়াহেদপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের তথ্য ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক নুরুল আমিন মুহুরী নিহত হন।

এসব নেতিবাচক কর্মকাণ্ড প্রসঙ্গে ছাত্রলীগের দফতর সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন শাহজাদা নয়া দিগন্তকে বলেন, দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ কোনো নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে যখনই আসে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সাথে সাথে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিয়ে থাকে। তারই ধারাবাহিকতায় বরগুনা জেলার পাথরঘাটায় দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে গত সোমবার চারনেতাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, একটি ঘটনা যদি ঘটে সেখানে ১০-১৫ জন জড়িত থাকে। এর মধ্যে একজন ছাত্রলীগ নেতাকর্মী থাকলে গণমাধ্যমে ওই একজনকে ফোকাস করে সংবাদ পরিবেশন করা হয় এটা দুঃখজনক। আমরা চাই জড়িত সবাইকে ফোকাস করা হোক। দোষী যেই হোক আমরা তার শাস্তি চাই।

প্রবীণ রাজনীতিবিদ অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন নয়া দিগন্তকে বলেন, বর্তমানে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের যে চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য ও কালচার এ ব্যাপারে বক্তব্য দেয়াও কঠিন। নেতাকর্মীদের নেতিবাচক কর্মকাণ্ডে দলের ভাবমর্যাদা নষ্ট হয়, দল বিব্রতবোধ করে। তবে যেসব এলাকায় নেতিবাচক কর্মকাণ্ড হচ্ছে আর যারা ঘটাচ্ছে তারা কোনো না কোনো নেতার ছত্রছায়ায় থাকে।

ফলে কাছের নেতাকর্মী হলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া যাচ্ছে না। আর যেখানে প্রধানমন্ত্রী সিরিয়াস থাকেন সেখানে ব্যবস্থা নেয়া হয়, পার পাওয়া যায় না। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী এসব ব্যাপারে সব সময় সিরিয়াস থাকেন। তবে যারা ছাত্রলীগকে নিয়ন্ত্রণ করেন তারা মাঝে মধ্যে প্রধানমন্ত্রীকে ভুল তথ্য দিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করেন। এক প্রশ্নের জবাবে অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন বলেন, যেসব এলাকায় ছাত্রলীগের নেতিবাচক কর্মকাণ্ড বেশি সেসব এলাকায় আগামী নির্বাচনে প্রভাব পড়বে এটাই স্বাভাবিক। তবে সময় থাকতে আমাদের সতর্ক হতে হবে।

Comments

comments