রংপুরে হিন্দুরাই নিজেদের বাড়িঘরে আগুন দিয়েছে! (ভিডিও)

ইসলাম ও নবী মোহাম্মদ সা: কে কটুক্তি করে এক হিন্দু ছেলে কর্তৃক ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়াকে কেন্দ্র করে গত শুক্রবার রংপুর সদর উপজেলার পাগলাপীর ঠাকুরপাড়া গ্রামে বিক্ষোভ ও পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় পুলিশের গুলিতে ২ জন মুসল্লি নিহত হয় এবং আহত হয় প্রায় ৪০ জন। এসময় স্থানীয় একটি হিন্দু বাড়িতে আগুন দেয়ার ঘটনাও ঘটে।

এদিকে হিন্দু বাড়িতে কারা আগুন দিয়েছে এনিয়ে অনেক সন্দেহ তৈরি হলেও বাংলাদেশের মিডিয়াগুলো ঢালাওভাবে মুসল্লিদেরকে দায়ী করে আসছিলো। কিন্তু সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওর মাধ্যমে মিডিয়ার সেই দাবি মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে।

ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া ঐ ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে হিন্দুদের ঘরগুলোতে যখন আগুন দেয়া হয় তখন আসে পাশে পুলিশ ছাড়া কোনো লোকজনই ছিলো না। ভিডিওর মাধ্যমে বুঝা যাচ্ছে হিন্দুরা নিজেরাই নিজেদের ঘরে আগুন লাগিয়েছে। কারন ভিডিওটিতে হিন্দুদেরকে উদ্দেশ্য করে পুলিশদেরকে বলতে শুনা যাচ্ছে যে, “আপনারা আগুন লাগালেন কেন?”। এছাড়া দেখা গেছে পুলিশ বালি ও পানি দিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করলেও হিন্দুদের মধ্য থেকে কেউই আগুন নিভানোর জন্য এগিয়ে আসেনি।

এর আগে স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেছিলেন, সাধারণ জনতার হামলায় হিন্দু বাড়িগুলোর খুব সামান্যই ক্ষতি হয়। তারা শুধু লাঠি সোঠা দিয়ে ঘর বাড়িতে আঘাত করে। কিন্তু সাধারণ জনতা চলে গেলে অন্য কেউ হিন্দুদের ঘরগুলোতে আগুন ধরিয়ে দেয়। ঘরগুলোতে আগুন লাগানোর সময় সেখানে ছিলেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা পলাশ চন্দ্র রায়। হিন্দু বাড়িতে আগুন ধরানোর পেছনে এই পলাশ চন্দ্র রায়কেই প্রধান কারিগর হিসেবে মনে করেন স্থানীয়রা। হামলার পর সাবোটাজ করতে তার সহযোগীতায়ই হিন্দুদের ঘরে আগুন দেয়া হয় বলে তাদের দাবি।

সূত্র : অ্যানালাইসিস বিডি

Comments

comments