বিন সালমানের মন্তব্যের সমালোচনায় এরদোগান

‘মধ্যপন্থি ইসলাম’ (Moderate Islam) বিষয়ে সৌদি যুবরাজের মন্তব্যের সমালোচনা করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগান। শুক্রবার আঙ্কারায় এক অনুষ্ঠানে এরদোগান বলেন, ‘মধ্যপন্থী ইসলাম’ আর ‘অ-মধ্যপন্থি ইসলাম’ বলে কিছু নেই। ইসলাম একটিই, এর কোনো বিভাজন নেই।’

গত মাসে সৌদি প্রিন্স মোহাম্মাদ বিন সালমান সৌদি আরবকে ২০৩০ সালের মধ্যে ‘মধ্যপন্থী ইসলাম’ রাষ্ট্রে পরিণত করার ঘোষণা দেন।

এর প্রেক্ষিতে এরদোগান বলেন, ‘ইসলামকে বিভিন্ন পন্থায় পরিচিত করিয়ে দেয়া মূল পশ্চিমাদের একটি কৌশল। এ ধরনের পরিচিতি ইসলামকে দুর্বল করে। এ নীতি ইউরোপকে বেশি লাভবান করবে।’ আঙ্কারায় ওআইসি’র ওমেন অ্যাডভাইসারি কাউন্সিল আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

এদিকে এরদোগান ইউরোপের বিভিন্ন দেশে মুসলমান নারীদের হিজাব নিষিদ্ধের সমালোচনা করে বলেন, আজ বেশিরভাগ ইউরোপীয় দেশে মুসলিম নারীদের শিক্ষাগ্রহণ ও চাকুরিতে অংশগ্রহণে বাধা দিচ্ছে। তারা আমারদের মানবাধিকার নিয়ে শিক্ষা দিচ্ছেন, অথচ তাদের দেশেই মানুষেরা মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত।

তুর্কি প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, তুরস্ক একাই সিরিয়ার ও ইরাকের শরণার্থীদের জন্য ৩০ বিলিয়ন ডলার ব্যয় করেছে। সেখানে ইউরোপিয়ান কমিশন থেকে ৬ বিলিয়ন ইউরো দেয়ার কথা থাকলেও দিয়েছে মাত্র ৪০০ মিলিয়ন ইউরো।

Comments

comments