পুলিশের বক্তব্য বানোয়াট দাবি করে শিবিরের প্রতিবাদ

রংপুরে হিন্দু বাড়ীতে হামলার সাথে ছাত্রশিবিরকে জড়িয়ে রংপুরের এসপি মিজানুর রহমানের মিথ্যা ও বানোয়াট বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির।

এক যৌথ প্রতিবাদ বার্তায় ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত ও সেক্রেটারি জেনারেল মোবারক হোসাইন বলেন, কোন তথ্য প্রমাণ ছাড়াই এমন একটি জঘন্য বিষয়ের সাথে জামায়াত-শিবিরকে জড়িয়ে পুলিশ কর্মকর্তার দায়িত্বহীন মিথ্যাচারে পুরো জাতি আজ বিস্মিত। তিনি বলেছেন, এই ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃতরা বেশির ভাগ জামায়াত-শিবির নেতাকর্মী সুতরাং এর সাথে জামায়াত-শিবির জড়িত। গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে এখনো তদন্ত হয়নি বা অভিযোগ প্রমাণ হয়নি। তাহলে কিসের ভিত্তিতে তিনি এখানে জামায়াত-শিবিরকে জড়িয়েছেন? অন্যদিকে এই পুলিশ কর্মকর্তা কর্তৃক ঢালাও ভাবে সবাইকে জামায়াত-শিবির তকমা লাগানোর পেছনে কোন অশুভ পরিকল্পনা রয়েছে কি না তা নিয়ে জন মনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। আমরা পুলিশ কর্মকর্তার এই দায়িত্বহীন ও ভিত্তিহীন বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। মনে হচ্ছে, কোন গোষ্ঠিকে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলে সুবিধা করে দিতে পুলিশ কর্মকর্তা জেনে বুঝেই এই বানোয়াট বক্তব্য দিয়েছেন।

আমরা স্পষ্ট করে বলতে চাই, ছাত্রশিবির সবসময় ধর্মীয় সম্প্রীতিতে বিশ্বাসী। সুদীর্ঘ পথচলায় ধর্মীয় সম্প্রীতি বিরোধী এমন নিকৃষ্ট কোন ঘটনার সাথে ছাত্রশিবিরের দূরতম সংশ্লিষ্টতার প্রমাণও কেউ করতে পরেনি। এদেশের জনগণ তার স্বাক্ষী। বরং সকল মত ও পথের মানুষের প্রতি শিবির সর্বাবস্থায় সহানুভূতিশীল। সংখ্যালঘুদের বাড়ীতে হামলা বা নির্যাতন কাপুরুষচিত কাজ। সুতরাং হঠাৎ করে ছাত্রশিবিরকে জড়িয়ে এই নিকৃষ্ট মিথ্যাচার জনগণ বিশ্বাস করেনা। আমরা পুলিশ কর্মকর্তার দেয়া এই মিথ্যা বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি। ক্ষতিগ্রস্তদের উপযুক্ত ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করার জন্য প্রশাসনের প্রতি আহবান জানাচ্ছি। অন্যদিকে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতকারীকে অবিলম্বে গ্রেপ্তারের মাধ্যমে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

Comments

comments