সুযোগ পেলে আ.লীগ বিরোধী সব শক্তি ধানের শীষে ভোট দেবে: কাদের

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সুযোগ পেলে আওয়ামী লীগ বিরোধী সব শক্তি বিএনপির প্রতীক ধানের শীষে ভোট দেবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সমম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সোমবার দুপুরে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে কক্সবাজার পাবলিক হল মাঠে নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি বড় দল। বিএনপিকে কোনোভাবেই দুর্বল ভাবা যাবে না। আগামীতে সুযোগ পেলে আওয়ামী লীগ বিরোধী সকল শক্তি ধানের শীষে ভোট দেবে। এই বিষয়টা অবশ্যই মাথা রাখতে হবে আমাদের। তাদেরকে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী ভেবে আগামী নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে।

তিনি বলেন, জাতীয়তাবাদী ন্যাশনালিষ্ট পার্টি (বিএনপি) এখন নালিশ পার্টি। তাদের কয়েকজন নেতা এক জায়গায় বসে প্রেস ব্রিফিংয়ের নামে মিথ্যাচারের বাংলা রেকর্ড করেছে। বসে বসে তারা মিথ্যা ও অহেতুক নালিশ করে যাচ্ছে।

কাদের বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। বাংলাদেশের আর দুর্দিন হবে না। আমরা এখন শেখ হাসিনার সাথে উন্নয়নের মহাসড়কে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সদস্য সংগ্রহ ও নবায়নে কোনো চিহ্নিত চাঁদাবাজ, সন্ত্রাস, ভূমিদস্যু, স্বাধীনতা বিরোধী, সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীর লোককে কোনোভাবেই সদস্য করা যাবে না। দলভারী করার জন্য খারাপ লোককে সদস্য করে পকেট ভারি করা যাবে না। আমাদের ভালো লোকের অভাব নেই। খারাপ লোকের দরকার আমাদের নেই।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে আরো কখনো গণঅভ্যুত্থান হবে না। কিন্তু বিএনপি এই দু:স্বপ্ন নিয়ে বসে আছে। কিন্তু তাদের সেই স্বপ্ন কখনো পূরণ হবে না।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান চেয়ারম্যানের পরিচালনায় ও সভাপতি সিরাজুল মোস্তফার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মাহাবুব-উল-আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কিবর নানক, আওয়ামী লীগের চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম, বাহাউদ্দীন নাছিম। উপস্থিত ছিলেন, দুর্যোগ ও ত্রাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহজাদা মহীউদ্দিন, কক্সবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খন্দকার মোস্তাক আহমদ চৌধুরী, সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল, আশেক উল্লাহ রফিক, আবদুর রহমান বদিসহ জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

শীর্ষ নিউজ

Comments

comments