টেক্সাসে গির্জায় বন্দুকধারীর হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৬

টেক্সাসে গির্জায় বন্দুকধারীর হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৬ জনে। রবিবার ওই গির্জায় প্রার্থনা চলাকালে এ হামলার ঘটনা ঘটে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরও প্রায় ২৫ জন। উইলসন কাউন্টির সাদারল্যান্ড স্প্রিং শহরের ফার্স্ট ব্যাপ্টিস্ট চার্চে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

টেক্সাসের গভর্নর গ্রেগ অ্যাবট ২৬ জন নিহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ঘটনার পরপরই উইলসন কাউন্টি কমিশনার আলবার্ঠ গামেয জুনিয়র প্রথমে ২৭ জনের নিহত হওয়ার খবর জানিয়েছিলেন সিবিএস নিউজকে। পরে ২০ জন নিহত হওয়ার খবর জানায় পুলিশ।

তবে গভর্নর অ্যাবট সংবাদ সম্মেলনে ২৬ জনের নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করে বলেছেন, ওই অঙ্গরাজ্যের ইতিহাসে সবচেয়ে ভয়াবহ হামলার ঘটনা এটি।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, ঘটনার পরপরই হামলাকারীও নিহত হয়েছে, তবে পুলিশের গুলিতে তার মৃত্যু হয়েছে নাকি সে আত্মঘাতী হয়েছে তা নিশ্চিত নয়।

স্থানীয় সময় বেলা সাড়ে এগারোটার দিকে সন্দেহভাজন হামলাকারী চার্চে ঢুকে গুলি ছুড়তে শুরু করে । প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়. হামলাকারী একজন শ্বেতাঙ্গ তরুণ এবং তার পরনে কালো পোশাক ছিল। এমন বর্ণনা দেন টেক্সাসের পাবলিক সেফটি ডিপার্টমেন্টএর মুখপাত্রও। হামলাকারী গুলি চালাতে শুরু করলে তার হাত থেকে একজন স্থানীয় ব্যক্তি রাইফেল কেড়ে নেয় এবং তার দিকে গুলি ছোড়ে। এরপর বন্দুকধারী একটি গাড়িতে চড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে পুলিশ তাকে গাড়ির ভেতর মৃত অবস্থায় পায়।

গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই জানায়, এখনও পর্যন্ত হামলাকারীর উদ্দেশ্য সম্পর্কে জানা যায়নি।

হামলার ঘটনার পরপরই এশিয়া সফররত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প টুইটারে লিখেছেন, এফবিআই এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ঘটনাস্থলে রয়েছে। তিনি জাপান থেকে পরিস্থিতির খবর রাখছেন।

বাংলা ট্রিবিউন

Comments

comments